কলাগাছিয়ায়া ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ড এলাকাবাসীর উদ্যোগের্  মোহনপুর এলাকায় উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মো. দেলোয়ার হোসেন প্রধান বলেন, ২০১১ সাল থেকে প্ল্যান করতে করতে ২০১৪ সালে আমার নামে মামলা করাইলেন, ২০১৬ সালে আমার স্ত্রী মারা যায় তাকে তখন ওই মামলা থেকে অব্যাহত দেন এবং বহু চেষ্টা করে এই মামলা রাখতে রাখতে এই পর্যন্ত নিয়ে আসছেন।

গতকালকে এই যে মামলার চার্জশিট গেছে সাথে সাথে তাদের কাছে কপি গেছে, কই দুদকের অফিস কই সদরঘাট কোর্ট আপনারা কোনো টিভি চ্যানেল কিংবা কোনো জাতীয় পত্রিকায় কি লেখছে কিন্তু মামলার কাগজ তাদের কাছে আসছে, এতে করে কি মনে হয় তারা ২০১১ সাল থেকেই তাদের ষড়যন্ত্র দেলোয়ারকে ঘায়েল করতে হবে।

শনিবার (৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় কলাগাছিয়া ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ড এলাকাবাসীর উদ্যোগের্  মোহনপুর এলাকায় উঠান বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। বিশিষ্ট সমাজ সেবিকা শিউলী বেগম এর সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর নবী ওসমানী ও এলাকার বিশিষ্ট সমাজ সেবক মো. আলী হোসেন, মো. তসলিম হোসেন, মো. মিসু, আইয়ুব আলী, মাহফুজুল ইসলামসহ অত্র এলাকার মুরুব্বি ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এ সময় দেলোয়ার প্রধান আরো বলেন, দুদকের মামলা মানে বড়লোক এর মামলা তারমানে আমি নিশ্চয়ই এমন শক্তিশালী যে দুদক মামলায় আপনারা মামলা করাইছেন আপনারা চার্জশিট দিয়েছেন এজন্য ঘুম হারাম করেন কেনো।

যেহেতু ২০১৪ সাল থেকে আমি এই পর্যন্ত মামলা পাইলা আসছি আপনেগো ভয় পাই নাই, আমি জামিনে আছি আর এই দুদক এর মামলায় কি ফাঁসি হইবো না পুলিশেও ধরবোনা আমি জামিনে আছি।

আমি আপনাদেরকে বলতে আপনারা যতো বড় বাঘের থাবা দেননা কেনো আপনাদের থেকে আমার দৌড়টা আমার কমনা অনেক বড়। তাই আমি বলতে চাই আগামী দিন ১১ তারিখ এ আপনারা লাঙ্গলে ভোট দিয়ে আপনাদের বাড়ি ঘর ঠিক রাখবেন।