শেষ হল আইডিএলসি ফাইন্যান্স অলিম্পিয়াড

আইডিএলসি ফাইন্যান্স অলিম্পিয়াড
আইডিএলসি ফাইন্যান্স অলিম্পিয়াড ২.০’-এর গালা অনুষ্ঠানে অতিথিদের সঙ্গে বিজয়ীরা। ছবি: সংগৃহীত

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শেষ হলো দেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন ফাইন্যান্স কুইজ প্রতিযোগিতা ‘আইডিএলসি ফাইন্যান্স অলিম্পিয়াড ২.০’-এর গালা।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ফার্মগেটে কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটে অনুষ্ঠানটির দ্বিতীয় আসর অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানের আয়োজকরা দাবি করেন, এ বছরের অলিম্পিয়াডে ৪০ হাজারেরও বেশি ছাত্রছাত্রী দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অনলাইনে অংশগ্রহণ করে।

আয়োজকরা জানান, গত ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত চলতে থাকে এর অনলাইন রাউন্ড। এর মধ্যে শীর্ষ ১০০ জনকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় গালা ইভেন্ট

দেশের বৃহত্তম নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেড এই অলিম্পিয়াড আয়োজন করে। এই আয়োজনের পৃষ্ঠপোষকতায় ছিল জনপ্রিয় অনলাইন প্লাটফর্ম রবি-টেন মিনিট স্কুল।

এ বছর বিজয়ীরা পুরস্কার হিসেবে পেয়েছে দুইজনের বালি ট্রিপ, ল্যাপটপ, স্মার্টফোন, সার্টিফিকেট এবং মেডেল।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের সিইও আরিফ খান।

গত বছরের মত এ বছরও প্রতিযোগিতার প্রথম রাউন্ড শুরু হয় অনলাইনে। ১০টি পার্সোনাল ফাইন্যান্স বিষয়ক ভিডিও দেখার সাথে সাথে ১০টি কুইজে অংশ নিতে হয় প্রতিযোগিদের। তাঁদের মধ্যে থেকে সর্বোচ্চ স্কোর করা ১০০জনকে আমন্ত্রণ জানানো হয় গালা অনুষ্ঠানে। এর মধ্যে ৫০জন জুনিয়র (১৪-১৮ বছর) ও ৫০জন সিনিয়র (১৯-২৪ বছর) গ্রুপের।

পরবর্তীতে লিখিত পরীক্ষা এবং বাযার রাউন্ডের মাধ্যমে নির্বাচিত হয় সেরা ৬জন বিজয়ী।

আইডিএলসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের সিইও আরিফ খান বলেন, বিগত ৩৪ বছর ধরে আইডিএলসি বিভিন্ন গঠনমূলক সামাজিক পদক্ষেপ নিয়ে এসেছে। এরই ধারাবাহিকতায় আইডিএলসি বিশ্বাস করে এ দেশের যুবসমাজের ব্যাক্তিগত ফাইনান্সিং এর দক্ষতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। গতবারের ফাইনান্স অলিম্পিয়াডের ব্যাপক সাড়া পাওয়ায় পর দ্বিতীয়বার এর মত অলিম্পিয়াডের এই আসর আয়োজনে আমরা আগ্রহী হই। আমরা আশা করব যুবসমাজ আমাদের এই অলিম্পিয়াড থেকে প্রাপ্ত ফাইন্যান্সিয়াল জ্ঞান তারা ব্যক্তিগত জীবনে ব্যবহার করবে।