বিসিবির পরিচালক পদে নির্বাচিত হওয়ায় গোগনগর ইউনিয়ন বাসীর পক্ষ থেকে সংবর্ধনা-তানভীর আহম্মেদ টিটু

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

গোগনগর ইউনিয়ন বাসীর উদ্যোগে শনিবার (২৩ অক্টোবর)  বিকেলে সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ সংলগ্নে তানভীর আহম্মেদ টিটু বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবির পরিচালক পদে নির্বাচিত হওয়ায় গোগনগর ইউনিয়ন বাসীর পক্ষ থেকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিসিবির পরিচালক তানভীর আহম্মেদ টিটু। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তানভীর আহম্মেদ টিটু বলেন,আমি আজকে আত্যন্ত আদর আপলিত আদর আপলিত এই কারণে আপনারা হয় যানেন কিছু দিন আগে আমি আমার  বাবাকে হাড়িয়েছি।যখন বাসা থেকে কোনো মুরুব্বি চলে যায় তখন বুঝা যায় তখন বুঝা যয়া তার অভাবটা কতোটুকু আজকে এই খানে এসে আমার  আমার আশেপাশে যত গুলো মুরুব্বি পেয়েছি তাদের যে ভাবে  আমি দোআ পেয়েছি  আমার ছোটো ভাইরা মিছিল করতে করতে এসেছে আমি  তাদের যে ভাবে  পাশে পেয়েছি। সত্যি আজকে আমরা মনে হচ্ছে না আমি বাবা ছাড়া একজন মানুষ।আমি সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাছি । আজকে যে এই সম্বর্ধনা আয়োজন করা হয়েছে ।

আমি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে পরিচালক পদে নির্বাচিত হয়েছি সেই জন্য আজকে প্রথম সম্বর্ধনা টাএই খানে এসে নিলাম।আপনারা হয় তো জানেন গত ৯ তারিখে আমার বাবা ইন্তকাল করেছে এবং তার দুই তিন দিন আগে ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচনটি সম্পর্ণ হয়েছে।তো এর পর  বিভিন্ন জায়গা থেকে আমাকে সম্বর্ধনা দিতে চেয়েছে আমি না করে দিয়েছি।কিন্তু ফজর ভাই বলেছে আপনকে আমরা একটু চাই সম্মান জানানোর জন্য আমি না করতে পারি নাই।আ্জকে এই খানে এসে আমি দুই জন মানুষকে খুব মিস করতেছি। একজন হচ্ছে আমাদের এস সালাউদ্দিন ভাই আরেক জন হচ্ছে নওনাধ ভাই। এমন একজন মানুষ ছিলেন খুব মাটির মানুষ ছিলেন এবং এই এলাকার খুব প্রিয় একজন মানুষ ছিলেন তারা দুইজনই।আমি তাতেরআত্নার মাগফেরাত   কামনা করছি এবং আল্লাহ যেনো তাদের বেহেস্থ নছিব করেন এবং আপনারা সকলে তাদের জন্য দোআ করবেন । আমার জন্য বাবাকে আপনারা দোআ করবেন। কারণ দুনিয়াতে থাকা অবস্থায় আমারা বিভিন্ন পাপ কারি অন্যায় করি দুনিয়াতে চলে যাওয়ার পরে আমাদের আর কিছু করার থাকে না।


 তিনি আরো বলেন,আপনাদের দোয়ায় আমি নারায়ণগঞ্জ  ক্লাবে সভাপতি হয়েছি,জেলায় ক্রীড়াসংস্থা এসেছি আমি ঢাকা বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে পর পর দুই বার নির্বাচিত হয়েছি।এখন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে আছি।জেলা পর্যায় কাজ করে এখন জাতীয় পর্যায় কাজ করার সুযোগ পেয়েছি।আমি জেনো  আমার কাজের মধ্যমে পরিচিত হতে পারি এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আরো উপরে নিয়ে যাবো বলে যে ভাবে আমরা প্রত্যয় ব্যাক্ত করেছি সেইটা কে যেনো বাস্তাবায়ন করতে পারি।আজকে  যে ঋণে আমাকে আবদ্ধ করেছেন তা কখনো শুধ করতে পারবো কিনা তা আমি জানি না।আমি কয়েকদিনে আগে ওই অডিটোরিয়ামে শিক্ষদের অনুধান দিতে এসেছিল শিক্ষদের জন্য অনুধানের কথা ও কিন্তু ফজর।আলী ভাই আমাদের বলেছিলেন এবং সেই জন্য আমরা এইখানে এসেছিলাম আমেরিকার একটা প্রতিষ্ঠানআমার বড় ভাইয়ের প্রতিষ্ঠান।সেই প্রতিষ্ঠান এর পক্ষ থেকে।এইখানে ফজর ভাই উপস্থিত আছে তাকে একটা কথা কলব উনি আমাদের পারিবারের সদস্য চেয়ে কম না।উনি আমাদের পরিবারের সদস্যমত। আমাকে যদি কেউ জিগাসা করে তোমার কোনো শত্রু আছে কিনা আমি চোখ বন্ধা করে ও সেইটা জানতে পারি না আমার কোনো শত্রু আছে কিনা আমার মাথার মধ্যে আসেই না।কারণ আমি নিজে কখনো কাউকে শত্রু মনে করি না এবংআমি মনে করি না কেউ আমারে শত্রু মনে করবে।কিন্তু কিছু কিছু মানুষ আছে যারা নিজেটা দিয়ে মানুষের জন্য করতে চায়।সেই রকমই একজন মানুষ ফজর ভাই।উনি চেষ্টা করেন সাধারন মানুষের কাছে থাকতে সাধারণ মানুষে জন্য কাজ করতে।

বিশিষ্ট সমাজ সেবক হামিদ ফকির এর সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন,গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ফজর আলী,সদর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আল মামুন,নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের পরিচালক ইদী আমীন ইব্রাহিম খলিল,সৈয়দপুর বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য নাজির হোসেন ফকির,শ্রমিক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ মুজিবুর রহমান সহ প্রমুখ।