1. sokalnarayanganj@gmail.com : সকাল নারায়ণগঞ্জ : সকাল নারায়ণগঞ্জ
  2. skriaz30@gmail.com : skriaz30 :
  3. : wpcron20dc4723 :
বেগম রোকেয়ার ১৪২ তম জন্ম ও ৯০ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মানববন্ধন - সকাল নারায়ণগঞ্জ
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৫:১৮ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট
নীট কনসার্ণ প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগ ২০২২-২৩কেসি এপরেলস হারালো আলীগঞ্জকে নারায়ণগঞ্জে বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল মেহের আফরোজ চুমকি এমপিকে উপজেলা আওয়ামীলীগের সংবধর্না প্রতি মাসের ন্যায় নারায়ণগঞ্জ নাসিম ওসমানের জন্য দোয়া অনুষ্ঠিত আনন্দমুখর পরিবেশে বিজিইপিএ-এর বনভোজন ও নবীন বরণ সম্পন্ন।  রমজানের আগেই ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন’ দাবি নতুনধারার শহিদ তাজুল স্মরণে নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদের শ্রমিক সমাবেশ মরহুমা সালেহা খানম স্মৃতি ফুটবল খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পন্ন চেয়ারম্যান হাজী মো: দেলোয়ার হোসেন প্রধানের মা আলহাজ্ব খোরশেদুন নেছা আর নেই  পরিক্ষার ৮ম দিনে যানযট মুক্ত কর্মসূচি পালন করছে যুবলীগের স্বেচ্ছাসেবক কর্মীরা

বেগম রোকেয়ার ১৪২ তম জন্ম ও ৯০ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মানববন্ধন

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ
  • আপডেট শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৫০ Time View
  • সকাল নারায়ণগঞ্জ

 

 

বেগম রোকেয়ার ১৪২ তম জন্ম ও ৯০ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মানববন্ধন করেছে সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম।

 

শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

 

সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মিমি পূজা দাসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আক্তার, সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম নারায়ণগঞ্জ জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুন্নাহার, দপ্তর সম্পাদক খায়রুননাহার, সাংস্কৃতিক সম্পাদক বিউটি আক্তার, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মুন্নি সরদার ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

 

নেতৃবৃন্দ বলেন, বেগম রোকেয়া যে সময়ে জন্মগ্রহন করেছিলেন সে সময়ে সমাজ ব্যবস্থা অশিক্ষার আভিশাপ ও পুরুষতন্ত্রের অবরোধ প্রথার মধ্যে ডুবে ছিলো। সে সময়ে মেয়েদের লেখাপড়া ছিলো নিষিদ্ধ ও পাপতুল্য। ২৯ বয়ছ বয়সে বেগম রোকেয়া বিধবা হয়েছেন। বিধবা হয়ে তিনি বুঝেছিলেন সমাজে নারীর অবস্থা কতটা নিগৃহীত। এ অবস্থা থেকে নারাীর মুক্তি ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠার হাতিয়ার হিসেবে নারাী শিক্ষার জন্য লড়াই শুরু করেছিলেন। কিন্তু তার উদ্দেশ্য ছিলো সার্বিকভাবে সমাজের অগ্রগতি। কারন তিনি বুঝেছিলেন অর্ধেক জনগোষ্ঠী নারীকে পেছনে ফেলে রেখে সমাজের অগ্রগতি সম্ভব নয়। তাই সে লড়াই আজো নারী মুক্তি আন্দোলনে প্রেরনা যোগায়। বেগম রোকেয়ার মৃত্যুর ৯০ বছর পর এবং স্বাধীনতার ৫১ বছর পরেও বাংলাদেশের আইনেই নারীর প্রতি বৈষম্য রাখা হয়েছে। পারিবারিক, সামাজিক এবং রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রতিনিয়ত সেই বৈষম্যমূলক আচরণ নারীদের অগ্রযাত্রাকে ব্যহত করছে।

 

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, বাহ্যিকভাবে দেখলে দেখা যাবে দেশে নারী প্রধানমন্ত্রীসহ অনেক বড় বড় দায়িত্ব পালন করছে। কিন্তু সমাজ মননে আরো অনেক বেশি অবক্ষয় ঘটে চলছে। সারাদেশে নারী শিশু ধর্ষণ- নির্যাতন হত্যা এক ভয়াবহ রুপ নিয়েছে। ঘরে বাহিরে সবর্ত্র যেকোন স্থানে দিনে রাতে যেকোন সময়ে নির্যাতনের শিকার হতে হয়। বেশিভাগ ঘটনার ক্ষেত্রেই দ্রুত এবং উল্লেখযোগ্য বিচারের নজির দেখা যায় না। আবার পারিবারিক জীবনের প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই নারী বৈষম্যের শিকার। সমাজে সম্পত্তির উত্তরাধিকার ক্ষেত্রেও নারীর প্রতি বৈষম্য বিরাজমান। গৃহস্থালি কাজ ছাড়া পরিবার চলেনা কিন্তু গৃহ¯া’লি কাজের স্বীকৃতি পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রে নাই। সমকাজে সমমজুরী আইনে থাকলেও বাস্তবে সমস্ত অপ্রাতিষ্ঠানিক ঘাতে নারী পুরুষের তুলনায় কম মজুরী পেয়ে থাকে। নারীর সস্তা শ্রমকে ব্যবহার করতে মালিক শ্রেনী যতো আগ্রহী, তাদের কাছে ততোটাই উপেক্ষিত নারীর অধিকার।

 

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, নারীকে মানুষ হিসেবে মর্যাদা দেয়ার দৃষ্টিভঙ্গি গড়ে তোলার লক্ষ্যে রাষ্ট্রের উদ্যোগ খুবই অপ্রতুল। বিজ্ঞাপন, সিনেমায় নারীকে পন্য হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। ওয়াজ মাহফিলে নারীকে নিয়ে অশ্লীল কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দেওয়া হয়। নারীর এ সকল সংকটের মূলে রয়েছে পুরুষতান্ত্রিকতা ও পুঁজিবাদী শোষণমূলক ব্যবস্থা।

 

সমাজের সকল বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে, শোষণমূলক সমাজ ও পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতা পরিবর্তনে বেগম রোকেয়া আজও প্রেরণার উৎস। নারী পুরুষের মিলিত সংগ্রামে সাম্য সমাজ প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে বেগম রোকেয়ার জীবন সংগ্রাম আজও পাথেয়।

আরও সংবাদ
© ২০২৩ | সকল স্বত্ব সকাল নারায়ণগঞ্জ কর্তৃক সংরক্ষিত
DEVELOPED BY RIAZUL