নারায়ণগঞ্জের প্রতিটি এলাকায় চলছে শাহজাহানের ভ্রাম্যমাণ জুয়ার আসর

  • সকাল নারায়নগঞ্জ

 

চায়ের দোকান কিংবা হোটেলে নারায়ণগঞ্জের  অসংখ্য নানা শ্রেণীপেশার মানুষ জুয়া খেলে নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছে।

 

বড় শাহজাহানের ভ্রাম্যমান এই জুয়ার আসরে বিশেষ করে যুবকদের অংশগ্রহণ অনেক বেশি বলে জুয়ার এ রমরমা বানিজ্যে প্রতিদিন দেশে কোটি কোটি টাকা আদান প্রদান হয়।

 

শহরের ১ নং রেল গেইট (বিআইডব্লিটির সরকারি জায়গা),জিমখানা, ফতুল্লা ও ভূইঘর এলাকায় চলছে বড় শাহজাহান ও ছোট শাহজাহানের ভ্রাম্যমান জুয়ার রমরমা বানিজ্য। জুয়ার কবলে পরে পরিবারের একজন বিপদগামীর জন্য গোটা পরিবারই পথের বসছে সবকিছু হারিয়ে। আমরা কয়েকজন ভুক্তভোগীর কাছ থেকে জানতে পেরেছি, পরিবারের ছোট কিংবা বড় যেকোন একজন বিপদগামী জুয়া জড়িয়ে নিঃস্ব করে দিচ্ছে পুরো পরিবারকে।

 

এসব ভ্রাম্যমান জুয়ার আসর এভাবে চলতে থাকলে একসময়ে বাংলাদেশ কোথায় গিয়ে পৌছবে? সোনার বাংলার দামাল ছেলেদের ভ্রাম্যমান জুয়ার আসর থেকে ফিরিয়ে আনা না গেলে দেশে আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটবে এবং অর্থনীতিতে এর মাশুল গুণতে হবে দেশকেই।

 

তাই এখনই সময় সচেতন হবার, যুবকদের জুয়ার আসর থেকে ফিরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজন এখনই পদক্ষেপ। বন্ধ হোক ভ্রাম্যমান জুয়ার আসর। ভালো থাকুক বাংলার যুব সমাজ।

 

বড় শাহজাহান ও ছোট শাহজাহান কিছুদিন আগে জোয়ার আসর,মাদক,বিদ্যুৎ চুরি সহ একাধিক মামলায় জেল ও খেটেছেন।