হাজীগঞ্জের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী পাপ্পুকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

ফতুল্লার হাজীগঞ্জ এলাকার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী কসাই পাপ্পু (২৮) কে গণধোলাই দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।
সোমবার (১ নভেম্বর) দুপুরে পুলিশ মাদক ব্যবসায়ী পাপ্পুকে মাদক মামলায় আদালতে প্রেরণ করে। 


এরআগে রবিবার (৩১ আগষ্ট) বিকেলে হাজীগঞ্জের ঈদগাহে প্রকাশ্যে মাদক বিক্রির সময় যুবলীগের নেতাকর্মীরা ২৫পিস ইয়াবা ও মাদক বিক্রির ১হাজার ৯শত ৫ টাকাসহ আটক করে। 


পরে তাকে গণধোলাই দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। কসাই পাপ্পুর বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মাদকসহ একাধিক মামলা রয়েছে।


এলাকাবাসী জানায়, কসাই পাপ্পু ও তার পুরো পরিবার মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকন্ডের সাথে জড়িত। পাপ্পু ও তার পরিবারের সদস্যদের প্রায়ই পুলিশ মাদকসহ ধরে নিয়ে যায়। কিছুদিন জেলে সাজা খেটে আবার জামিনে এসে আগের মত মাদক ব্যবসা শুরু করে।


কিছু দিন আগে নারায়নগঞ্জ ডিবি পুলিশের হাতে পাপ্পুর বোন লিপি আক্তার (৩০) ফেন্সিডিলসহ ধরা পড়েছিল। লিপি আক্তরের স্বামী শিপন জালটাকাসহ ঢাকা থেকে গ্রেপ্তার হয় এবং দীর্ঘ ৬মাস জেলে সাজা খেটে কিছুদিন আগে জামিনে বেড়িয়ে আসে।


ফতুল্লা মডেল থানার এসআই নূর মোহাম্মদ জানান, এলাকাবাসী ইয়ারা ট্যাবলেটসহ মাদক ব্যবসায়ী পাপ্পুকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।