বন্দরের নবীগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করেছেন ৫ আসনের সাংসদ একেএম সেলিম ওসমান

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

বন্দরের কলাগাছিয়া ইউপি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থীর পক্ষ নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাজিম উদ্দিন ও বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ রশীদের উদ্দেশ্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ একেএম সেলিম ওসমান৷ `গাঞ্জার নৌকা কখনও তাল গাছে উঠবে না` বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির এই সাংসদ৷ বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে বন্দরের নবীগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন৷


সেলিম ওসমান বলেন, ‘আমার সাথে তিনজন কাজ করেছেন৷ একজন আমার স্নেহের মুকুল, বন্ধু আবু জাহের, আরেকজন এই উপজেলার চেয়ারম্যান এমএ রশীদ। ৩ জনের মধ্যে একজন মারা গিয়েছেন, একজন এখানে উপস্থিত আছেন আরেকজন কলাগাছিয়ায় গাঞ্জার নৌকা তাল গাছে উঠাইয়া ফেলতেছেন।’


বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ রশীদকে উদ্দেশ্য করে সাংসদ আরও বলেন, ওনার বুঝা উচিত আজকে এটাকে চেয়াম্যান বানালে কয়েকদিন পরেই থাকবে না। কিন্তু আজকে এই ১২৬৫ জন শিক্ষার্থী আমাদের ভবিষ্যত হবে। কোনো লুটেরাকে চেয়ারম্যান বানিয়ে আপনার লাভ হবে না। গাঞ্জার নৌকা কখনও তাল গাছে উঠবে না।’


তিনি আরও বলেন, ‘আমি অনেক আগেই আমার মানুষ চেয়েছি। আমার মানুষ কলাগাছিয়ায় লাঙলের দেলোয়ার হোসেন। কোনো জোরের কথা বলছি না, কারণ একজন সংসদ সদস্য কখনো একথা বলতে পারে না। সাধারণ মানুষের ইচ্ছায় আল্লাহ যদি আমাকে হায়াত দেন যদি আপনারা কলাগাছিয়ার উন্নয়ন চান ইনশাল্লাহ যে উন্নয়নগুলো বন্ধ হয়েছে তা আমি দেলোয়ারকে নিয়ে আরও দ্রুত পরিসরে চালাবো।’


সেলিম ওসমান আরও বলেন, ‘আমরা শেখ হাসিনার নৌকা, গাঞ্জায় উঠার নৌকা আমরা না। এম এ গাজী সালাম ওকে আমার দরকার। ওকে ছাড়া আমার ঐ এলাকা চলবে না। ধামগড়ে ইউনিয়নে আরেক নৌকা মাসুম আহমেদ। ঐ পারের আলীরটেকের জাকির সাহেব নৌকা। ইচ্ছা করলে আমি তাকে লাঙলও করতে পারতাম। কারণ নৌকা আর লাঙলে ব্যালেন্স রাখতে হবে। আজকে জসিম উদ্দিন সাহেব একজন কুখ্যাত লোকের সাথে নির্বাচন করছেন। মানুষের চলাফেরো শয়তানের থেকে একটু বেশি হয়। তাই এই মঞ্চ থেকে তার জন্যে দোয়া করছি সে নির্বাচিত হয়ে আমার সাথে কাজ করতে পারে।’


এ সময় নবীগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আতাউর রহমান মুকুলের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন, বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিএম কুদরত-এ-খুদা, ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সানু, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, বন্দর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থী এহসান উদ্দিন আহমেদ, ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী মাসুম আহমেদ, মুছাপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থী মাকসুদুর রহমান,মদনপুর চেয়ারম্যান প্রার্থী এম এ সালম,কলাগাছিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার প্রধান,গোগনগর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থী জসিম উদ্দিন নাসিক ১৬নং ওয়ার্ড  কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন আহমেদ দুলাল প্রধান,জেলা জাতীয় যুব সংহতির আহবায়ক রিপন ভাওয়াল প্রমুখ।