প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করে ডাঃ আতিকুজ্জামানের দোয়া

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মদিন উপলক্ষে মহানগর আওয়ামীলীগের সাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা.আতিকুজ্জামান  সোহেলের ব্যাক্তিগত উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবার ( ২৮শে সেপ্টেম্বর) বাদ মাগরিব ২নং বাবুরাইল এলাকায় বীর মুক্তিযোদ্ধা আশ্রাফউজ্জামান তোতা মিলনায়তনে এ কর্মসুচি পালিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন। এসময় সম্প্রতি তিনি সেই স্মৃতি চারণ করে বলেছেন, জেলা ও মহানগর থেকে সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে আমার নাম প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিলো কেন্দ্রে।
আমিও আশায় ছিলাম, যেহেতু মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি, সিটি মেয়র পদটা আমিই পাবো। যখন সিটি মেয়র পদে আমাকে দেয়া হলো না, তখন  অসুস্থ্য হয়ে গেলাম। হাসপাতালের বিছানায় শুয়েছিলাম। আমার নেত্রী আমাকে ফোন করে বললেন, আনোয়ার তোমাকে একটা খুশীর খবর দিতে চাই। বললাম, কি আর খুশীর খবর দিবেন নেত্রী। দলের জন্য এতোকিছু করলাম, বিনিময়ে কি পেলাম? তখন নেত্রী বললেন, তোমাকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে দিলাম। জনপ্রতিনিধি। হয়ে মানুষের সেবা করো।
তিনি আরও বলেন ৭৫’র পর বর্তমান প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফেরার পর এক সমাবেশে  আমি  হলুদ পাঞ্জাবী পড়া ছাত্রলীগের নেতা কর্মীদের বিশাল মিছিল নিয়ে যাই । তখন নেত্রী বলেছিলেন, আমার হলুদ পাখি এসে গেছে। ৭৫ এ জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর নারায়ণগঞ্জে প্রতিবাদ মিছিল নিয়ে রাজপথে নেমেছিলাম। এরপর সম্মেলনে ভোটের মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হই।
এরপর দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছায় মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি।আনোয়ার হোসেন আরো বলেন আমি গর্ভিত আমাদের মহানগরে ডা. আতিকুজ্জামান সোহেল কে  কর্মী হিসেবে পেয়ে। মহামারী কোরনা কালিন সময় আমাদের নেতা কর্মীদের বিনামুল্য চিকিৎসা প্রধান করেছে। সভাপুর্বে প্রধান অতিথি আনোয়ার হোসেন। অশ্রফুজ্জামান মিলনায়তন ভবন এর শুভ উদ্ভোদন করেন। এবং সভাশেষে কেক কেটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপন করেন।
এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের
সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ হায়দার আলী পুতুল, সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গনি ভূইয়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব,জিএম আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক  জিএম আরাফাত, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আয়ুব আলী, বন ও পরিবেশ সম্পাদক আক্তারু জামান,সদস্য জালাল উদ্দিন জালু,কায়ুম পারভেজ, শামীম খান,সাফায়েত হোসেন সমুন,সাব্বির আহাম্মেদ সাগর,জেলা যুবলীগের তথ্য ওগবেশনা বিষয়ক সম্পাদক তাহের উদ্দিন সানি,সাবেক ছাত্র নেতা সেলিম হাসান দিনার,আক্তারউল ইসলাম রয়েল,আমিনুল ইসলাম রিপন,আলি হাসান সজীব, মোশারফ হোসেন জনি,সাজ্জাদ হোসেন শাহেদ,জনি,রাজীব,রিশাত,হৃদয়,আলামিন,আরমান,আপু,বিকি,রিফাত,প্রমুখ।