অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও অস্ত্র বিক্রেতা মুরাদ হোসেনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

ঢাকা জেলার সাভার মডেল থানাধীন এলাকা হতে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও অস্ত্র বিক্রেতা মুরাদ হোসেন’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪ঃ ০১ টি পাইপগান ও ০৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার।
র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন, র‌্যাব এলিট ফোর্স হিসেবে আত্মপ্রকাশের সূচনালগ্ন থেকেই বিভিন্ন ধরনের অপরাধ নির্মূলের লক্ষ্যে অত্যন্ত আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে আসছে। সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নির্মূল ও মাদকবিরোধী অভিযানের পাশাপাশি খুন, চাঁদাবাজি, ডাকাতি, অস্ত্রধারী ও ছিনতাই চক্রের সাথে জড়িত বিভিন্ন সংঘবদ্ধ ও সক্রিয় সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্যদের গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের জন্য শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে র‌্যাবের জোড়ালো তৎপরতা অব্যাহত আছে।
এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টা ৫০ মিনিটের সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার সাভার মডেল থানাধীন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ০১ টি পাইবগান ও ০৩ রাউন্ড গুলি সহ চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও অস্ত্র বিক্রেতা’কে গ্রেফতার করতে সমর্থ হয়।
গ্রেফতারকৃত সন্ত্রাসী হলেন, মোঃ মুরাদ হোসেন (৩১), জেলা- ঢাকা।
জিজ্ঞাসাবাদে সে দীর্ঘ দিন যাবত অস্ত্র ক্রয়-বিক্রয়ের সাথে জড়িত বলে স্বীকার করে। পূর্বে সে একাধিক দেশীয় অস্ত্র অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের নিকট অর্থে বিনিময়ে বিক্রয় করেছিল। এছাড়া আসামী নিজের  সাথে সকল সময় অস্ত্র ও গুলি বহন করতো এবং সে এলাকার বিভিন্ন নিরিহ মানুষকে অস্ত্র প্রদর্শন সহ ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ করে আসছিলো। সে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে লোকজনের নিকট থেকে জোরপূর্বক চাঁদা দাবি করতো এবং কেউ চাঁদা দিতে না চাইলে তাকে মারধরসহ গুরুতর জখম করে তার নিকট হতে জোরপূর্বক চাঁদার টাকা আদায় করতো। আসামী মূলত অস্ত্রধারী হওয়ায় সাধারণ জনগণ তার বিরুদ্ধে কোন কথা বলতে সাহস করতো না এবং কেউ তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ করলে অস্ত্র প্রদর্শন করে তাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করতো।
উপরোক্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন। অদূর ভবিষ্যতে এরূপ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও অবৈধ অস্ত্র বিক্রেতার বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোড়ালো সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে