নবীগঞ্জ রওশনবাগে জলাবদ্ধতায় প্রায় ৩ শতাধিক পরিবার দুর্ভোগে, খবর নেই কাউন্সিলর আফজালের

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক) 

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৪ নং ওয়ার্ডের নবীগঞ্জ রওশনবাগ এলাকায় ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতায় প্রায় তিন শতাধিক পরিবার দুর্ভোগ নিয়েই জীবন-যাপন করছে। এসব পরিবারের ঘরে পানি উঠে বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। একটু বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার শুরু কয়েক দফা বৃষ্টি হওয়ায় এখন এলাকার বিভিন্ন স্থানে স্থায়ী জলাবদ্ধতায় রূপ নিয়েছে। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় এমন জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে।
মঙ্গলবার (১ জুন) সকালে সরেজমিনে জলাবদ্ধতাপূর্ণ এলাকা ঘুরে দেখা যায়, মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না। ঘরের মধ্যেও হাটু পানি জমে আছে। বাইরের টয়লেটগুলো পানিতে তলিয়ে রয়েছে। মল-মূত্রের পানিতে সবদিক একাকার। পঁচা দুর্গন্ধে দম বন্ধ হয়ে আসে। স্বাভাবিক কাজকর্ম-চলাচল নিরুপায় হয়ে উঠছে। নিরুপায় হয়ে মটর দিয়ে পানি সেচে কমানোর চেষ্ঠা চলছে।
নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৪নং ওয়ার্ডের নবীগঞ্জ রওশন বাগ এলাকায় পানিবন্দি অবস্থায় থাকা জয়নাল মিয়ার স্ত্রী জানান, বাইরে পানি, ঘরের মধ্যেও পানি জমে থাকায় বাচ্চাদের নিয়ে সব সময় আতঙ্কে রয়েছি। কখন জানি পানিতে পড়ে যায় ছোট ছেলে-মেয়েরা। সাপ, জোঁক, কেঁচোর উৎপাত তো আছেই। রাতে ঘুমোতে ভয় লাগে।
নবীগঞ্জ রওশন বাগ এলাকার একাধিক ব্যক্তি বলেন, আমাদের রওশন বাগ এলাকার জলাবদ্ধতা এখন আমাদের কাছে অভিশাপ। এ অভিশাপ যেনো শেষ হবার নয়। দীর্ঘদিন ধরে আমাদের এ অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। আমরা একাধিক বার ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেনের শরনাপন্ন হয়েছি কোন লাভ হয়নি। আর কাউন্সিলর আফজাল হোসেনের দেখা পাওয়া খুব কঠিন ব্যাপার। সে তো ফোনই ধরেনা। বাড়িতে গেলেও তার দেখা পাওয়া যায়না। মাঝে মাঝে মহিলা কাউন্সিলর শাওন অংকনের দেখা পেলেও কাউন্সিলর আফজালকে তো দেখাই যায়না বরং বছরে দু’চার বার সে বাইওে বের হলে সাংবাদিকদের ডেকে এনে উন্নয়ণমুলক কাজের ছবি তুলেই চলে যায়।
এ ব্যপারে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেনের মুঠো ফোনে আলাপ করার চেষ্টা করলেও তার ব্যবহৃত ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২২,২৩,২৪ নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর শাউন অংকন বলেন,আমি জলাবদ্ধতা নিরসনে মেয়র মহোদয়ের সাথে আলাপ করে খুব দ্রুত ব্যবস্থা নেবো।