রান করাটা একটা অভ্যাসের ব্যাপার: শান্ত

সকাল নারায়ণগঞ্জ অনলাইন ডেস্কঃ

ঘরোয়া লিগে ভালো খেলেই জাতীয় দলে স্থান করে নিয়েছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। তাও আবার সাকিব আল হাসানের জায়গায়।

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার এক বছর ক্রিকেটে নিষিদ্ধ হওয়ার পর শান্তকে তার জায়গায় খেলার সুযোগ দিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

কিন্তু জাতীয় দলে ঢুকে নির্বাচকদের আস্থার প্রতিদান দিতে না পারায় সদ্য সমাপ্ত শ্রীলংকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে বাদ পড়লেন।

ফের জাতীয় দলে ফেরার সংগ্রাম করতে হবে শান্তকে। অস্ত্র একটি-ই, হাতের ব্যাট। ব্যাট চালিয়ে ফের ঘরোয়া লিগে রানের বন্যা বইয়ে দিতে হবে।

তবেই না যদি ফের সুনজরে পড়েন নির্বাচকমণ্ডলীর। একই ইঙ্গিত দিয়েছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবালও।

ব্যাট চালানোর সুযোগও সামনে চলে এসেছে।  শান্তর লক্ষ্য এখন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল)। ডিপিএলে রানের বন্যা বইয়ে দিতে প্রত্যয়ী এ টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান।

তবে শান্তর মতে, রান করাটা একটা অভ্যাসের ব্যাপার। এই অভ্যাস ঘরোয়া ক্রিকেটে গড়ে নিতে হয়, যার ফল পাওয়া যায় আন্তর্জাতিক খেলায়।

জাতীয় দলে ফেরার পরিকল্পনায় নাজমুল বলেন, ‘আলাদা করে কাজ করার কিছু নেই। আমার লক্ষ্য এখন ওটাই যে, নিয়মিত রান করব, আমি রান করতে চাই। রান করেই দলে ফিরতে চাই। আমার কাছে মনে হয় রান করাটা একটা অভ্যাসের ব্যাপার। ডিপিএলে ১৬টা ম্যাচ খেলতে পারব। এই ম্যাচগুলোতে যদি নিয়মিত রান করতে পারি, তা হলে সেই অভ্যাসটা তৈরি হবে। তখন জাতীয় দলে খেললে নিয়মিত রান করতে পারব বলে মনে করি।’

শান্তর কণ্ঠে শোনা গেল দৃঢ় প্রত্যয়ের সুর, ‘ক্রিকেটে পারফরম করাটাই গুরুত্বপূর্ণ। অন্য কোনো উপায় নেই। একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে নিয়মিত যেন রান করতে পারি, নিয়মিত যেন পারফরম করতে পারি; সেটিই বিবেচ্য। সেটি ঘরোয়া ক্রিকেট হতে পারে বা ফার্স্টক্লাস ক্রিকেট হতে পারে।’

প্রসঙ্গত আগামী ৩১ মে শুরু হতে যাচ্ছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসর। টুর্নামেন্টে আবাহনীর হয়ে খেলবেন শান্ত। যেখানে তার সতীর্থ হিসেবে রয়েছেন মুশফিক, লিটন, নাঈম তাইজুলের মতো জাতীয় দলে তারকারা।