1. [email protected] : সকাল নারায়ণগঞ্জ : সকাল নারায়ণগঞ্জ
  2. [email protected] : skriaz30 :
  3. : wpcron20dc4723 :
নারায়ণগঞ্জে অজ্ঞাত এক পুরুষ মৃতদেহের পরিচয় ৮ মাসেও শনাক্ত হয়নি। - সকাল নারায়ণগঞ্জ
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৩:৫০ অপরাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট
না’গঞ্জ জেলা ও মহানগর ঐক‌্য প‌রিষ‌দের কর্মী স‌ম্মেলন অনু‌ষ্ঠিত পূর্বাচলে শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ রূপগঞ্জে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের বিশেষ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত মুক্তিযুদ্ধে শরণার্থী শিবিরে ভারতের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সাকিব খানের গোপনাঙ্গ কেটে ফেললেন স্ত্রী  রূপগঞ্জে কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরণ এসপির নাম ভাঙ্গিয়ে প্রতারক সোহেলের চাঁদাবাজি কোটা সমস্যার সমাধান করার দাবি জাতীয় শিক্ষাধারার রায়ের বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে নগর কৃষি বিষয়ক পরীক্ষামূলক কার্যক্রম কোটা বিরোধী আন্দোলনকে আদালত বিরোধী বলা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য দেশকে মেধাশূন্য করার নামান্তর

নারায়ণগঞ্জে অজ্ঞাত এক পুরুষ মৃতদেহের পরিচয় ৮ মাসেও শনাক্ত হয়নি।

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ
  • আপডেট সোমবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৯
  • ১৬৩ Time View
নারায়ণগঞ্জে অজ্ঞাত এক পুরুষ মৃতদেহের পরিচয় ৮ মাসেও শনাক্ত হয়নি।
নারায়ণগঞ্জে অজ্ঞাত এক পুরুষ মৃতদেহের পরিচয় ৮ মাসেও শনাক্ত হয়নি। (ছবি সকাল নারায়ানগঞ্জ)

সকাল নারায়ানগঞ্জঃ নারায়ণগঞ্জে অজ্ঞাত এক পুরুষ মৃতদেহের পরিচয় ৮ মাসেও শনাক্ত হয়নি।

গত ২৯ মার্চ সিদ্ধিরগঞ্জের ইপিজেডের পেছনে শীতলক্ষ্যা নদী থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের ৪ মাস পর লাশটি বেওয়ারিশ হিসেবে আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামের মাধ্যমে কবরস্থ করা হয়।

এর আগে মৃতদেহটি নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্ত করা হলে, তাতে শ্বাসরোধে হত্যার কথা উল্লেখ করা হয়। যার ফলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় এ বিষয়ে একটি হত্যা মামলা রেকর্ড করা হয়।

তবে, লাশের কোন পরিচয় না পাওয়ায় হত্যার রহস্য উদঘাটন করতে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে তদন্তকারী সংস্থার। এ নিয়ে অনেকটা বিপাকে সিআইডি পুলিশ।

এমনিক, লাশটি উদ্ধারের সময় অর্ধগলিত থাকায় পরিচয় শনাক্তের জন্য আঙ্গুলের ছাপও নেওয়া সম্ভব হয়নি বলে জানান সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক জিয়াউদ্দিন উজ্জ্বল। তিনি বর্তমানে মামলাটির তদন্ত করছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২৯ মার্চ সিদ্ধিরগঞ্জ থানার আদমজী এলাকার ইপিজেডের পেছনে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে একজন পুরুষের মৃতদেহ স্থানীয়দের নজরে আসে। খবর পেয়ে থানার এসআই ফরিদউদ্দিন ফোর্স নিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় দুপুর ১২টার দিকে লাশটি অর্ধগলিত অবস্থায় উদ্ধার করে। লাশটি পারে উঠানোর পর দেখা যায়, তার পরনে ছিল ফুল হাতা ছাপা শার্ট এবং কালো রংয়ের ফুল প্যান্ট। বয়স আনুমানিক ৩০ এবং উচ্চতা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি। এ ঘটনায় তখন থানায় অপমৃত্যু মামলা করা হয়। পরে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টেরিয়া) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে অজ্ঞাত ওই ব্যক্তিকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন ময়নাতদন্তকারী ডাক্তার আসাদুজ্জামান। যিনি জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার। এর প্রেক্ষিতে অপমৃত্যু মামলাটি খুন মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়।

এদিকে কোন পরিচয় না পাওয়ায় চলতি বছরের জুলাই মাসে বেওয়ারিশ হিসেবে লাশটি দাফন করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক জিয়াউদ্দিন উজ্জ্বল বলেন, এই মামলার কূল কিনারা করতে আগে প্রয়োজন লাশের পরিচয়। তারপর হত্যার রহস্য উদঘাটনের কাজ। কিন্তু গত ৮ মাসেও লাশের কোন পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি। লাশ উদ্ধারের পর গণমাধ্যমে ছবিসহ সংবাদ আসার পরও আজ পর্যন্ত লাশের পরিচয় জানতে কোনদিক থেকেই কারও সাড়া পাচ্ছি না।

লাশটির পরিচয় শনাক্ত করতে যোগাযোগ করুণ:

সিআইডি জিয়াউর উদ্দিন উজ্জল ০১৭২০- ২৪৪৯৮৫

আরও সংবাদ
© ২০২৩ | সকল স্বত্ব সকাল নারায়ণগঞ্জ কর্তৃক সংরক্ষিত
DEVELOPED BY RIAZUL