শুক্রবার শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা প্রথম পর্বের আনুষ্ঠানিকতা

  • সকাল নারায়ণগঞ্জ

 

 

আগামী শুক্রবার শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা প্রথম পর্বের আনুষ্ঠানিকতা। কহরদরিয়া খ্যাত টঙ্গীর তুরাগ তীরে ৫৬তম বিশ্ব ইজতেমার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত ইজতেমা ময়দান। ইজতেমায় অংশ নিতে ইতোমধ্যে ময়দানে আসতে শুরু করেছেন দেশ বিদেশের মুসল্লিরা।

 

১৬০ একর জায়গার বিশাল ময়দানে শামিয়ানা টানানোর কাজ শেষ। বৈদ্যুতিক বাতি, মাইক, জেনারেটর সংযোগ, পানি সরবরাহ ব্যবস্থাসহ আনুষঙ্গিক কাজও শেষ হয়েছে।

 

শুক্রবার ফজরের নামাজের পর আমবয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। তবে বুধবার সকাল থেকেই ছোট ছোট দলে বিভক্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে তাবলীগ জামাতের মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে আসতে শুরু করেছেন। অবস্থান নিয়েছেন তাদের নিজ নিজ খিত্তায়। আগত মুসল্লিদের সুবিধার্থে ৫ জোড়া বিশেষ ট্রেন ও বিআরটিসি বাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

 

ময়দানের পশ্চিম পাশে তুরাগ নদীর পূর্ব পাড়ে নামাজের মিম্বার এবং উত্তর-পশ্চিম দিকে বিদেশি মেহমানদের জন্য নির্ধারিত কামরার পাশে মূল বয়ান মঞ্চ নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতিবছরের মতো এবারও বাংলার পাশাপাশি উর্দু ও হিন্দি ভাষায় বয়ান করা হবে এবং বিভিন্ন দেশ থেকে আসা মুসল্লিদের সুবিধার্থে বয়ানের সঙ্গে সঙ্গে তরজমা করা হবে।

 

পুলিশ মহাপরিদর্শক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, মুসল্লিদের নিরাপত্তায় পুরো ময়দানে প্রায় ৩০০ ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা বসানো হয়েছে। এ ছাড়াও সাইবার নিরাপত্তা দেওয়া হবে। আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। ইজতেমায় বিদ্যমান দুই পক্ষ সহযোগিতা করবে। তাদের মধ্যে কোন সমস্যা হবে না।

 

ইজতেমার সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন আগত মুসল্লিরা।

 

প্রথম পর্ব ১৩ জানুয়ারি শুরু হবে। রোববার আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হবে এর আনুষ্ঠানিকতা। চারদিন বিরতির পর শুরু হবে দ্বিতীয় পর্ব। তবে বিভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইজতেমার আয়োজনের দাবি সাধারণ মুসল্লিদের।