প্রশাসনকে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক মিশুক মালিক ও শ্রমিকেরা

  • সকাল নারায়নগঞ্জ

 

 

ভূয়া নামধারী সাংবাদিকের স্টিকারযুক্ত অটো-মিশুক গাড়ি বন্ধ ও ভূয়া সাংবাদিকদের গ্রেপ্তারে প্রশাসনকে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক মিশুক মালিক ও শ্রমিকেরা।

 

শনিবার (৭ জানুয়ারী) বেলা ১২টা  নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে তারা এ আল্টিমেটাম দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন অটো মালিক মো. মামুন, অটো চালক নূর আলম, নূর শাহাজান, নূর মোহাম্মদ, নিজাম উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন সহ শত শত অটো মালিক ও শ্রমিকেরা।

 

নারায়ণগঞ্জ শহরে কিছু নামধারী সাংবাদিকদের ভূয়া স্টিকার ব্যতীত ইজিবাইক মিশুক রেকার বিলের নামে আটকের প্রতিবাদে এ বিক্ষোভ মিছিলের আয়োজন করা হয়।

 

এসময় বক্তারা বলেন, দীর্ঘ ৫-৬ মাস যাবৎ কিছু ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও মিশুক নামধারী সাংবাদিকের স্টিকার ও প্রশাসনের পরিচয় দিয়ে শহরে ঘুরে বেড়াচ্ছে। কিছু কুচক্রী নামধারী সাংবাদিকদের কারণে আমরা যারা অটো ব্যবসা করি ও গাড়ি চালাই তারা সুন্দরভাবে গাড়িগুলো পরিচালনা করতে পারছি না। তারা ১৫শ ও দুই হাজার টাকা করে স্টিকার বিক্রি করতেছে। এই গাড়িগুলো রাস্তায় চললে প্রশাসন দেখে না ও তাদের চোখে পড়ে না। আবার দেখেও তারা কাঠের চশমা পড়ে।

 

তারা আরও বলেন, আমরা যারা স্টিকারবিহীন গাড়ি চালাই আমাদের আটক করা হয়। আমাদের আটক করে ডাম্পিংয়ে নিয়ে ৪-৫ ঘন্টা আটকে রেখে ১-২ হাজার টাকা জরিমানা করে মুক্তি দেয়া হয়। আমরা যারা শহরে গাড়ি প্রবেশ করি আমাদের গাড়ি অবৈধ হয়ে যায় আর যারা ভ’য়া স্টিকার টোকেনের মাধ্যমে শহরে প্রবেশ করে তাদের বৈধ হয়ে যায়। এটা কোন ধরনের দেশ ও কোন ধরনের আইন?

 

প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে বক্তারা বলেন, আমাদের সংগ্রাম এখানে শেষ নয়। আপনারা যদি এই ভ’য়া স্টিকারগুলো বন্ধ না করেন ও আমাদের যদি নারায়ণগঞ্জ শহরে প্রবেশ করতে না দেন আমরা নারায়ণগঞ্জ শহরের আনাচে কানাচে যতো অটো মালিক শ্রমিক আছে সবাইকে নিয়ে জোরালো আন্দোলনের ঘোষরা দিবো। আল্টিমেটাম দিলাম ৭২ ঘন্টার মধ্যে আপনারা আইনের মাধ্যমে ভ’য়া সাংবাদিকের স্টিারকে বন্ধ ও তাদেরকে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করেন।