কর্ডএইড এবং নারায়ণগঞ্জ সিটি করর্পোরেশনের যৌথ উদ্যোগে কর্মশালা অনুষ্ঠিত

  • সকাল নারায়ণগঞ্জ

 

 

বাংলাদেশ সরকার বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বদ্ধ পরিকর। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য মাত্রাকে সামনে রেখে, কর্ডএইড এবং নারায়ণগঞ্জ সিটি করর্পোরেশন যৌথ উদ্যোগে আজ ১৫ই নভেম্বর ২০২২ তারিখে নগর ভবন সম্মেলন কক্ষে একটি কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

 

বিভিন্ন অংশীজনদের অংশগ্রহণে প্লাস্টিক বর্জ্যের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা তরান্বিত করার উদ্দেশ্যে প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিষয়ক “পরিবেশ রক্ষার্থে রিসাইক্লিং উদ্যোক্তাদের উপার্জন ও জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে (রেজিলিয়েন্ট) প্রকল্প” (Recycling for the Environment by Strengthening Income and Livelihoods of Entrepreneurs-RESILIENT) এর অংশ হিসেবে উক্ত কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

 

ঢাকা শহরে প্রতিদিন প্রায় ৬৪৬ টন প্লাস্টিক বর্জ্য সংগ্রহ করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, ২০২৫ সাল নাগাদ এর পরিমাণ দ্বিগুণ হবে (সূত্রঃ ওয়ার্ড ব্যাংক)। নারায়ণগঞ্জ নগরীতেও এই প্লাস্টিক বর্জ্যের পরিমান কম নয়।

দ্যা কোকা-কোলা ফাউন্ডেশন এর আর্থিক সহযোগিতায় রেজিলিয়েন্ট প্রকল্প ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এর ৫টি ক্লাস্টার এলাকাতে পাইলট করা হচ্ছে। মোট ৪২০ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী ও ভাঙ্গারী ব্যবসায়ীদের পেশাগত স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা, ব্যবসায়িক উন্নয়নের মাধ্যমে প্লাস্টিক বর্জ্যের পুনঃব্যবহার বাড়ানোই রেজিলিয়েন্ট প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য।

 

 

এই কর্মশালায় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম সহ নগর পরিকল্পনাবিদ মোঃ মইনুল ইসলাম; পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শ্যামল চন্দ্র পাল,  অসিত বরণ বিশ্বাস, কাউন্সিলর, ওয়ার্ড নং- ১৫ এবং সভাপতি, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কমিটি; ফারাহ শারমিন আওলাদ, কান্ট্রি পাবলিক এ্যফেয়ারস্, কমিউনিকেশন এ্যন্ড সাসটেইনিবিলিটি লিড, কোকা-কোলা বাংলাদেশ লিঃ এবং লেনেকেব্রাম, ক্লাস্টার ডিরেক্টর – এশিয়া ক্লাস্টার, কর্ডএইড, বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের সম্মানিত শিক্ষকবৃন্দ এবং সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন সুপারভাইজারগণ উপস্থিত ছিলেন।