প্রতিদ্বন্ধী মেম্বার প্রার্থীকে পেটানোর অভিযোগ কামরুলের বিরুদ্ধে

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

নির্বাচনে পরাজিত হওয়ার ভয়ে প্রতিদ্বন্ধী মেম্বার প্রার্থী গোলাম সারোয়ার কে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে এনায়েত নগর ইউনিয়নের ৯ নং  ওয়ার্ডের আরেক মেম্বার প্রার্থী কামরুল ইসলামের বিরুদ্ধে। আহত অহবস্থায় নগরীর একটি হাসপাতালে ভর্তি আছেন আপেল মার্কা প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়া গোলাম সারোয়ার। শনিবার রাতে গাবতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। রোববার বিকেলে এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় অভিযোগ করেছে তিনি।

গোলাম সারোয়ার বলেন, অর্ধিক ভাবে অচ্ছলতার কারনে আমি লোক দিয়ে পোষ্টার লাগাতে পারিনি তাই শনিবার রাত ১ টার দিকে নিজে পোষ্টার লাগাতে গাবতলী এলাকায় গিয়েছিলাম। সেখানে স্কুলের সামনে ১০ থেকে ১২ জন লোক সহ কামরুল ইসলাম লোহার রড নিয়ে গতিরোধ করে। ওই সময় তারা আমাকে লোহার রড দিয়ে পেটায় ও মাথার মধ্যে আঘাত করে। তারা বলে নির্বাচন থেকে সরে যেতে, ঘরে তালা বদ্ধ করে বসে থাকতে। তাছাড়া আরও নানা ভাবে হুমকি দেয়। ওই সময় কামরুলের সাথে ফুটবলার মনির ও ফরহাদও ছিলো।  

গোলাম সারোয়ার আরও বলেন, কামরুল দীর্ঘ দিন ধরে এলাকায় মাদক বিক্রেতাদের সাথে আতাত করছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়েছি সেই থেকে আমাকে সে তার শত্রু ভাবে। এই কামরুলের  বাড়ি ১০ বছর আগে ছিলো টিন সেটের তবে এখন সেটা ৭ তলা কিভাবে? আমি জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে দুর্ণীতি দমন কমিশনকে জানাবো। তিনি বলেন, এবার নিবার্চনে পরাজিত হওয়ার ভয়ে সে আমাকে হামলা করেছে। ফতুল্লা থানায় করা অভিযোগে এসব বিষয় উল্লেখ আছে।

তবে এসব অভিযোগ অস্কিকার করেছেন ইউপি সদস্য প্রার্থী কামরুল ইসলাম। তিনি দাবি করেন, তার জয়ের আভাসে এসব মিথ্যা অভিযোগ তুলছে প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী সারোয়ার।

এ বিষয়ে সদর উপজেলার রিটারনিং কর্মকর্তা আফরোজা খাতুন বলেন, অভিযোগ পেলে আইন অনুসারে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি ঘটনা যদি ফৌজারী আইনে পরে তাহলে পুলিশও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবে।