সংস্কৃতি হোক সমাজ পরির্বতনের হাতিয়ার

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

নারায়গঞ্জে চারণের ২য় জেলা কাউন্সিলের নবনির্বাচিত কমিটির পরিচিতি সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রদীপ সরকার আহ্বায়ক ও জামাল হোসাইন সদস্য সচিব নির্বাচিত

‘সংস্কৃতি হোক সমাজ পরির্বতনের হাতিয়ার’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে আজ ১৩ আগষ্ট’২১ বিকাল ৫ টায় ২ নং রেলগেটস্থ বাসদ মিলনায়তনে চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলার নবনির্বাচিত কমিটির পরিচিতি সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সংগঠক প্রদীপ সরকারের সভাপতিত্বে কাউন্সিল পরিচিতি সভায় বক্তব্য রাখেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বি, বাসদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক ও চারণের কেন্দ্রীয় ইনচার্জ নিখিল দাস , নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সহ—সভাপতি ধীমান সাহা জুয়েল, চারণের সংগঠক জামাল হোসেন ও সেলিম আলাদীন প্রমূখ।

সভায় রফিউর রাব্বি বলেন, দেশে এক চরম সাংস্কৃতিক সংকট চলছে। একদিকে পুজিঁবাদী ভোগবাদী সংস্কৃতি আরেকদিকে মৌলবাদী সংস্কৃতি মানুষের জীবনকে বিষিয়ে তুলেছে। বিচারের আগেই একজন নায়িকাকে অভিযুক্ত করে পুলিশ প্রশাসন ও মিডিয়া র্কতৃক সম্ভ্রম হানি করা হয়েছে। অথচ ঘটনায় যুক্ত রাঘব বোয়ালরা ধরাছোঁয়ার বাহিরে। এতে নারীর প্রতি সমাজের নিম্ন চিন্তার উসকানি দেয়ায় নারী নির্যাতনের মাত্রা আরো বৃদ্ধি পাবে। বিচারহীনতার সংস্কৃতি অপরাধের মাত্রা বাড়িয়ে দিচ্ছে।

স্বাধীনতার ৫০ বছরের দ্বারপ্রান্তে এসেও সাম্প্রদায়িক সহিংসতার স্বীকার হতে হচ্ছে সংখ্যালঘু হিন্দু, বৌদ্ধ, আদিবাসী সম্প্রদায়কে। তখন আমরা বুঝি আমাদের মুক্তিযেুদ্ধর বাংলাদেশ হারিয়ে গেছে। সুনামগঞ্জের শাল্লায় হিন্দুগ্রামে হামলাকারী মুক্তি পায় অথচ নিরাপরাধ ঝুমন দাশকে থাকতে হয় জেলখানার অন্ধকার প্রকোষ্ঠে। তাই আজ মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সংস্কৃতি অর্থাৎ অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক মুক্ত চেতনার সংস্কৃতিকে জাগ্রত করতে হবে।

নিখিল দাস বলেন, দেশে চরম ফ্যাসীবাদী অপশাসন চলছে। দূর্নীতি লুটপাটের পাশাপাশি গুম, খুন, নারী, শিশু ধর্ষণ নির্যাতন ক্রমাগত বেড়ে চলছে। করোনা মোকাবিলায় সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। সংস্কৃতি জগতের যারা মহীরুহ হিসেবে পরিচিত তারা যখন বর্তমান অন্যায়ের বিরুদ্ধে নিশ্চুপ, তখন সকল অন্যায়ের বিরুদ্ধে রাজপথে যারা সরব, তাদের সংগঠিত করে আন্দোলন গড়ে তোলার দায়িত্ব চারণকে নিতে হবে। তিনি বুর্জোয়া ভোগবাদী সংস্কৃতির বিপরীতে শোষণহীন সমাজব্যবস্থার পরিপূরক সর্বহারা সংস্কৃতি গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

সভার শেষ পর্যায়ে প্রদীপ সরকারকে আহ্বায়ক ও জামাল হোসেনকে সদস্য সচিব করে ৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করেন চারণের কেন্দ্রীয় ইনচার্জ নিখিল দাস। পরিশেষে চারণ শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করেন।

বার্তা প্রেরক
জামাল হোসেন