ওসমান পরিবারের ৩টি স্থাপনার নামকরণ করায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন মুরাদ হোসেন

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক)

ওসমান পরিবারের তিন কর্ণধার এর সম্মানে সড়ক ও নির্মাণাধীন সেতু সহ তিনটি স্থাপনার নামকরণ করায় বঙ্গবন্ধুর কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, সমাজসেবক ও তরুণ রাজনীতিবিদ মোঃ মুরাদ হোসেন বারিস।

মুরাদ হোসেন বলেন, আর এ সম্মান গোটা নারায়ণগঞ্জবাসীর। কারণ এ পরিবারটি নারায়ণগঞ্জের মানুষের জন্য প্রজন্মের পর প্রজন্ম কাজ করে যাচ্ছে। প্রয়াত সাংসদ সদস্য নাসিম ওসমান নারায়ণগঞ্জবাসীর উন্নয়নে যথেষ্ট শ্রম দিয়েছে। তাই নারায়ণগঞ্জবাসী ও তার কর্মী সর্মথকদের সকলেরই প্রাণের দাবী ছিল, পাশাপাশি একসময়কার সপ্ন এখন বাস্তবায়নের দিকে। আর মদনগঞ্জ-সৈয়দপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে বন্দর উপজেলায় নির্মাণাধীন তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুটি উনার (বীর মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম নাসিম ওসমানের) নামকরণ করা হোক, এ নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আমি অনেকবারই দাবী তুলেছি। অবশেষে সেটা বঙ্গবন্ধুর কন্যা, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পূরণ করেছেন। তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এবং পরিবারের সদস্যদের র্দীঘায়ু কামনা করি।

উল্লেখ্য, গত ২৫ই মে মঙ্গলবার সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় তিনটি পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করে দুইটি সড়ক ও একটি নির্মাণীধীন সেতু নারায়ণগঞ্জের আলোচিত ও ঐতিহ্যবাহী ওসমান পরিবারের তিনজনের নামকরণে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। স্থাপনাগুলোর মধ্যে এ.কে.এম সামসুজ্জোহা নামকরণ হয়েছে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের সাইনবোর্ড থেকে চাষাড়া পর্যন্ত আঞ্চলিক মহাসড়কটি। তাছাড়া এ.কে.এম সামসুজ্জোহা স্ত্রী ভাষা সৈনিক বেগম নাগিনা জ্জোহার নামকরণে হয়েছে খানপুর হয়ে হাজীগঞ্জ গোদনাইল হয়ে ইপিজেড পর্যন্ত আঞ্চলিক মহাসড়কটি। আর মদনপুর- মদনগঞ্জ- সৈয়দপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে বন্দর উপজেলায় নির্মাণাধীন তৃতীয় শীতলক্ষ্যা সেতুটি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ.কে.এম নাসিম ওসমানের নামকরণে হয়েছে।