সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (২০২১-২২) নির্বাচনে সাদা প্যানেলের পক্ষে নাঃগঞ্জ বার সভাপতি মোহসীন মিয়ার যোগদান

উৎসবমুখর পরিবেশে বৃহস্পতিবার (১১ মাচ) সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়েছে আইনজীবীদের অন্যতম সংগঠন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (২০২১-২২) নির্বাচন। বিকাল ৫টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ চলবে।


বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ (সাদা প্যানেলের) পক্ষে ভোট দিতে সকালে নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী নেতাকর্মীদের নিয়ে সেখানে উপস্থিত হয়েছেন জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড.মোহসীন মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক এড.মাহবুবুর রহমান।


এছাড়াও আরও উপস্থিত আছেন,জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সিনিয়র সহ-সভাপতি এড. বিদ্যুৎ কুমার সাহা, সহ-সভাপতি এড. বরুণ চন্দ্র দে, যুগ্ম সম্পাদক এড. রবিউল আমিন রনি, কোষাধক্ষ্য এড. মনিরুজ্জামান কাজল, আপ্যায়ন সম্পাদক এড. মো. স্বপন ভূঁইয়া, লাইব্রেরী সম্পাদক এড. মাহমুদুল হক মমিন, ক্রীড়া সম্পাদক এড. সাজ্জাদুল হক সুমন, সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক আসাদুল ইসলাম বিপ্লব, সমাজ সেবা সম্পাদক এড. ইসরাত জাহান ইনা, আইন ও মানবাধিকার সম্পাদক এড. নুসরাত জাহান তানিয়া, কার্যকরী সদস্য এড. সিরাজুল হক মিলন, এড. শরিফুল ইসলাম, এড. কামরুল হাসান, এড. আবু তাহের রানা ও এড. রোমানা আক্তার।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক আইনমন্ত্রী আবদুল মতিন খসরু সভাপতি পদে ও সম্পাদক পদে আবদুল আলিম মিয়া প্রার্থী হয়েছেন। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন আইনজীবীদের সংগঠন বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ (সাদা হিসেবে পরিচিত) তাঁদের সমর্থন করছে।

অন্যদিকে সভাপতি পদে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সদস্যসচিব মো. ফজলুর রহমান ও সম্পাদক পদে রুহুল কুদ্দুস (বর্তমান সম্পাদক) নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। বিএনপির নেতৃত্বাধীন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেল (নীল হিসেবে পরিচিত) তাঁদের সমর্থন করছে।


এ ছাড়া সভাপতি, সম্পাদকসহ বিভিন্ন পদে বেশ কয়েকজন প্রার্থী হয়েছেন। তবে সাধারণ আইনজীবীদের ধারণা, ওই দুই প্যানেলের প্রার্থীদের মধ্যেই মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।


প্রসঙ্গত,১৪টি পদের বিপরীতে সব মিলিয়ে এবার ৫১ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এবারের নির্বাচনে ভোটারের সংখ্যা ৭ হাজার ৭২১।সভাপতি ১টি, সহসভাপতি ২টি, সম্পাদক ১টি, কোষাধ্যক্ষ ১টি, সহসম্পাদক ২টি, সদস্য ৭টি পদসহ মোট ১৪টি পদে ১ বছর মেয়াদের জন্য এ নির্বাচন হয়ে থাকে।

গত নির্বাচনে ১৪টি পদের মধ্যে সভাপতিসহ ৬টি পদে সরকার সমর্থক আইনজীবীরা এবং সম্পাদকসহ ৮টি পদে বিএনপির সমর্থক আইনজীবীরা জয়ী হয়েছিলেন।