রাজনিতীতে কোন শেষ কথা নাই একে এম সেলিম ওসমান

সকাল নারায়ণগঞ্জ:

মাছুম নিবাচিত হলে ধামগড়ের কোন উন্নয়ন বাকি থাকবে না ।  ধমগড়ে এসে মনে হচ্ছে আমার বাবা মায়ের স্বপ্ন পূরন হয়েছে। ধমগড়  ইউনিয়নে কোন কাঁচা রাস্তা থাকবে না। এই এলাকায় কোন শিক্ষার অভাব থাকবে না । কেউ কেউ খোচা দিবে।  কে কি বলল তাতে কান দিবেন না। নির্বাচন তোমাদের করতেই হবে।

পরিবর্তন হতেই হবে। আমি দান করি না।  আমি আমার দায়িত্ব পালন করি। আমি সরকারি টাকায় খরচ করে বলি না আমি করে দিলাম।  মাননীয় প্রধাণমন্ত্রী ও এটা বলে না।  তিনি বলেন আমরা করে দিলাম।

আরেকজন বলেন আমি এটা করে দিলাম। যেটা করে দিয়েছে। তা আমাদের ট্যাক্সের টাকায় হয়। এতে আপনি বাধ্য। যাই উন্নয়ন হয় একজনই করেন সেটা হচ্ছে প্রধাণমন্ত্রী। শুক্রবার বিকেলে বন্দর উপজেলাধীন ধামগড় ইউনিয়নস্থ জামেয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার মাঠে এক মত বিনিময় সভার প্রধাণ অতিথি’র বক্তব্যে  নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব একেএম সেলিম ওসমান এসব মন্তব্য করেন। তিনি আরো যুক্ত করে বলেন, চেয়ারম্যানদের বলি ভোটের মাধ্যমেই আপনাকে নির্বাচিত হতে হবে। সেলিম ওসমানের নমিনেশনে নয়। সেলিম ওসমানের ক্ষমতা নাই কাউকে নমিনেশন দেওয়ার। 

তিনি আরো একজন জনপ্রতিনিধিকে উদ্দেশ্য করে বলেন,বিদেশ থেকে উড়ে এসে চেয়ারম্যান হয়েছেন। আপনার বাপের সম্মানে দেওয়া হয়েছিলো।

আপনাকে বলি খোঁচাখোঁচি করবেন না। পরিশেষে তিনি ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে আবারো মাসুম আহমেদ নির্বাচিত করতে জনগণকে আহ্বান করেন।

 ধামগড় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাসুম আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত শহিদ মোঃ বাদল, মহানগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এড.খোকন সাহা,সিনিয়র সহ-সভাপতি চন্দন শীল, বন্দর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ রশিদ, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব কাজিম উদ্দিন প্রধাণ।