মাসদাইরের অটোগ্যারেজ মালিক আলীকে এসিডে জ্বলসে দিলো সোহাগ-সানী বাহিনী

সকাল নারায়ণগঞ্জ:

ফতুল্লা সংবাদদাতা: চলন্ত অটোরিকশা থামিয়ে এসিড নিক্ষেপ করে দুই জনকে নির্মমভাবে জ্বলসে দিয়েছে মাসদাইর এলাকার চিহ্নিত এসিড সন্ত্রাসী সোহাগ-সানী বাহিনী।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১২টায় মাসদাইর গভ: গালর্স স্কুলের সামনে এ ঘটনা ঘটে।আহতরা হলেন, পূর্বপাড়া মাসদাইর এলাকার আব্দুল জব্বারের ছোট ছেলে মো: আলী হোসেন (৩৫) ও তার অটোরিকশা গ্যারেজের কর্মচারি মো: মিজান (৩৬)।স্থানীয় এলাকার সূত্রে জানাগেছে, আহত আলী হোসেন মাসদাইর এলাকায় একটি অটোরিকশা গ্যারেজের মালিক।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২ দিকে তার সেই অটোরিকশা গ্যারেজ বন্ধ করে যাওয়ার পথে মাসদাইর গভ: গার্লস উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে তার অটোরিকশা আটকিয়ে তার উপরে এসিড নিক্ষেপ করে এসিড সন্ত্রাসী সোহাগ হোসেন ও সানী সহ আরও বেশ কয়েকজন সন্ত্রাসী। এসময় ঘটনাস্থলেই আলী হোসেনের শরীরের অনেক অংশ পুড়ে যায়।

অপর দিকে তার সাথে অটোরিকশা গ্যারেজ কর্মচারিরও পায়ের অনেক অংশ পুড়ে যায়। তাদের আত্মচিৎকারে আশেপাশে লোকজন এগিয়ে আসলে এসিড সন্ত্রাসীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে আহতদের দ্রুত নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টরিয়া) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু আহতদের অবস্থা গুরুত্বর দেখে হাসপাতালের ডাক্তার তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে (বার্ন ইউনিট) প্রেরণ করা হয়।

বর্তমানে গুরুত্বর আহত আলী হোসেন সেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।এদিকে এ বিষয়ে আলী হোসেনের বড় মো: আব্দুর রহমান বাদি হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় দুইজনের নাম উল্লেখ করে ৫ জনের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের জন্য অভিযোগ তদন্তকারিকে নির্দেশ প্রদান করেছেন বলে জানাগেছে।প্রসঙ্গত, এসিড সন্ত্রাসী সোহাগ-সানী বাহিনী এর আগেও বহুবার বহুজনকে এসিড নিক্ষেপ করে জ্বলসে দিয়েছে। এ সংক্রান্ত তার বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানাও মামলাও দায়ের করা হয়েছিলো।