নৌবিহারের আড়ালে বিলাসবহুল লঞ্চে জুয়া, মাদক ও অসামাজিক কার্যকলাপ

সকাল নারায়ণগঞ্জ:

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক)

র‍্যাব-১০ তার আওতাধীন এলাকায় মাদক, জুয়া ও অসামাজিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ অবস্থান নেওয়ায় এসব অপরাধীরা তাদের অপরাধ সংঘটনের জন্য নতুন নতুন পন্থা অবলম্বন করে।

এরই চেষ্টা হিসেবে ঢাকার সদর ঘাট হতে নৌবিহারের নামে ঢাকা চাঁদপুর রাউন্ড ট্রিপে সকাল হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত এরূপ অপরাধ ও অসামাজিক কার্যকলাপ চালাতে সচেষ্ট হয়। র‍্যাব -১০, সদর কোম্পানির অপারেশন টিম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, ঢাকা-চাঁদপুরগামী এম ভি রয়েল ক্রুজ-2 নামক বিলাসবহুল লঞ্চে মাদক, জুয়া ও অসামাজিক কার্যকলাপ সংঘটিত হবে।

এই সংবাদের ভিত্তিতে অপারেশন দলের কয়েকজন সদস্য ঢাকার সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল হতে ছেড়ে যাওয়া এম ভি রয়েল ক্রুজ-2 জাহাজে সাধারণ যাত্রী বেশে অবস্থান নেয়। এই লঞ্চটি সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল হতে সকাল সাড়ে ১০টায় চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে।

লঞ্চে মাদকদ্রব্যের ব্যবহার, জুয়ার আসর ও অসামাজিক কার্যকলাপের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে লঞ্চে থাকা এফএস সদস্যগণ লঞ্চটি থামাতে চেষ্টা করলে লঞ্চের ক্রুগণ অসহযোগী মনোভাব প্রকাশ করেন। এমত অবস্থায় অপারেশন দলনেতার নেতৃত্বে অন্য এফএস সদস্যগণ সহ দুইটি ট্রলারযোগে পানগাও, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ সংলগ্ন এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীর মাঝে লঞ্চটিকে থামাতে বাধ্য করা হয়। অতঃপর পানগাও লঞ্চঘাটে লঞ্চটিকে নোঙ্গর করা হয়।

এ সময় কোনো আসামি যেন পালিয়ে যেতে না পারে এবং কোন দুর্ঘটনা না ঘটে সে বিষয়ে সর্বোচ্চ সর্তকতা অবলম্বন করা হয়। লঞ্চটিতে তল্লাশি করে নিম্নলিখিত জুয়া, মাদক ও অসামাজিক কার্যকলাপের বিষয়টি নিশ্চিত হয়। এখানে মোট আটক পুরুষ = ৪৭ জন, মহিলা = ৪৯ জন।

মামলা সমূহঃ জুয়া মামলাঃ- ১) আসামি – ১০ জন
২) টাকা – ৩,৫২,০০০/-
৩) প্লেইং কার্ড – ৮৩২ টি
৪) জুয়ার বড় কার্ড-৩০ টি
৫) জুয়ার ব্যানার – ০১ টি
৬) মোবাইল – ১১টি
৭) সিম – ২২ টি
৮) মেমোরি কার্ড – ১১ টি
৯) মানিব্যাগ –
১০ টি মাদক মামলাঃ
১) আসামি – ০৭ জন
২) বিয়ার – ১১০ ক্যান
৩) বিদেশি মদ – ০২ বোতল
৪) ইয়াবা – ১৩০ পিছ
৫) গাজা – ২০০ গ্রাম
৬) টাকা – ১৬,৫০০/-
৭) মোবাইল – ০৬ টি
৮) সিম – ১০ টি
৯) মেমোরি কার্ড – ০৫ টি
১০) মানিব্যাগ – ০৭ টি
১১) লঞ্চ – ০১ টি (তিন তলা বিশিষ্ট)
অসামাজিক কার্যকলাপ মামলাঃ
১) মহিলা – ৪৯ জন
২) পুরুষ – ৪৭ জন
৪) জেল – ০২ টি
৫) সিরাপ – ০৪ বোতল
৬) টাকা – ২২,০৯০/-
৭) মোবাইল – ৮৩ টি
৮) সিম – ১৩৮ টি
৯) মেমোরি কার্ড – ৬৭ টি
১০) মানিব্যাগ – ২৬ টি
১১) লেডিস ব্যাগ – ৪৯ টি ইতিমধ্যে ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে।