বন্দরে নানা আয়োজনে জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালণ

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

জাতীয় পার্টির ৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে শুক্রবার বিকেল ৪টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির উদ্যোগে বন্দর শাহী মসজিদ ফাযিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভার শুরুতেই সুদূর দুবাই হতে মোবাইল কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান। সভায় প্রধাণ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা।

মহানগর জাতীয় পার্টির আহবায়ক ও বন্দর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল্লাহ সানুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অংশ নেন নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহবায়ক ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আফজাল হোসেন,মহানগর জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব আকরাম আলী শাহিন,কলাগাছিয়া ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি মোঃ বাচ্চু মিয়া,বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাতীয় পার্টির নেতা এহসানউদ্দিন আহম্মেদ ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক কাজী মোঃ মহসিন।

মহানগর যুব সংহতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রিপন ভাওয়ালের সঞ্চালনায় এ  সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক পার্টির নেতা জি এ রাজু,২২নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির নেতা আজহারুল ইসলাম ভূইয়া জিন্নাহ,১৯নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির সভাপতি পলি বেগম,২০নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির নেতা মনির হোসেন,মোঃ শহীদুল্লাহ,মহানগর জাতীয় পার্টির নেতা মোঃ শাহ আলম.মতিউর রহমান মুক্তি,ধামগড় ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির নেতা কামাল হোসেন,আলাউদ্দিন প্রেসিডেন্ট,গাজী মান্নান,জেলা জাতীয় পার্টির নেতা মোঃ জাহাঙ্গীর আলম,২৫নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির নেতা শরীফ হোসেন শাহ,মোঃ শাওন,মুছাপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির নেতা মোঃ ওয়াসিম,আলী হোসেন মোল্লা প্রমুখ। সভার শুরুতেই জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রয়াত রাস্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ,নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের প্রয়াত সাংসদ বীরমুক্তিযোদ্ধা নাসিম ওসমান ও জেলা জাতীয় পার্টির প্রয়াত আহবায়ক আবুল জাহেরের আত্নার প্রতি সম্মান জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালণ করা হয়।

এছাড়া শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে ও জাতীয় সংগীত পরিবেশণের মধ্য দিয়ে আলোচনা পর্বের সূচনা করা হয়। পরিশেষে লিয়াকত হোসেন খোকার নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য আনন্দ র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি বন্দর শাহী মসজিদ হতে শুরু করে বাসস্ট্যান্ড হয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।