চোরাই মিশুক গাড়ীসহ ৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছে ফতুল্লা থানা পুলিশ

সকাল নারায়ণগঞ্জ:

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক)

ফতুল্লা থানা পুলিশ ব্যাটারী চালিত চোরাই মিশুক গাড়ীসহ ৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছে। 


গ্রেফতারকৃতরা হলেন, শেরপুর জেলার নকলা থানার মৃত আবেদ আলীর ছেলে বদিউজ্জামান (৪৫) মাসদাইর (আব্দুর রহিমের বাড়ীর ভাড়াটিয়া), সুন্দরগঞ্জ থানার মৃত আব্দুল গফুর এর ছেলে শফিকুল (৩০) জামতলা (খোকন এর বাড়ীর ভাড়াটিয়া), মৃত হামিদুল ইসলাম এর ছেলে জহুরুল ইসলাম (২৬) মীর হাজীরবাগ চৌরাস্তা (আলী আহম্মেদের বাড়ীর ভাড়াটিয়া, যাত্রাবাড়ি )।


ফতুল্লা থানা পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর) রাত ১ টার দিকে পঞ্চবটি মোড় হতে বাদী (ভিকটিম) মোঃ জালাল (৪৪) এর ব্যাটারী চালিত মিশুক গাড়ীতে গ্রেফতারকৃত তিন আসামি পঞ্চবটি হতে শিয়াচর তক্কার মাঠ পেয়াবাগান যাওয়ার কথা বলে ১২০ টাকায় ভাড়া করে।

মিশুক গাড়ী সহ রাত অনুমান দেড়টায় আসামীগণ শিয়াচর তক্কার মাঠ পেয়ারা বাগান সাকিনস্থ নির্জন স্থানে মেইন রাস্তায় পৌছালে আসামীগণ বাদীর গলায় ও মুখে গামছা পেচিয়ে মিশুক থামাতে বলে।

বাদী মিশুক থামালে আসামীগণ বাদীর গলায় চাকু ধরে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে মিশুক গাড়ী ছিনতাই করে পালানোর সময় স্থানীয় লোকজন সহ উক্ত এলাকায় টহলরত ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ আসামীদের গ্রেফতার করে। তাদের দখল হতে উক্ত মিশুক গাড়ী ( মূল্য অনুমান ৮০,০০০/- টাকা) ও ১টি সুইচ গিয়ার চাকু উদ্ধার করেন। উক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় দ্রুত বিচার আইনের মামলা রুজু করা হয়।

আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেওয়া তথ্য মতে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ ২৫ ডিসেম্বর ভোর সোয়া ৫ টায় জামতলা ধোপাট্টিস্থ আসামী মোঃ আব্দুর রশিদ দুলাল (৫৫) কে গ্রেফতার করে। সে লালমনিরহাটের মৃত শারিল উদ্দিন এর ছেলে। জামতলা ধোপাপট্টি আরিফ সাহেবের বাড়ীর ভাড়াটিয়া। তার (আব্দুর রশিদ দুলাল) গ্যারেজ হতে ৪টি চোরাই ব্যাটারী চালিক মিশুক গাড়ী উদ্ধার করে। যার মূল্য অনুমান দুই লাখ ৪০ হাজার টাকা। 


আসামী মোঃ আব্দুর রশিদ দুলাল সহ উল্লেখিত সকল আসামীদের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় চোরাই মাল ক্রয় বিক্রয়ের অপরাধে মামলা রুজু পূর্বক আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়।