প্রতারক বাসের হেলপার মাসুমকে দেখা যায় মাদক স্পটে

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক)

থানায় মিথ্যা জিডি করার পরও থেমে নেই বাসের হেলপার মাসুমের প্রতারণা। চালিয়ে যাচ্ছে ঘর দখলের পায়তারা। 


মাসুম নতুন করে তার অন্য ভাই বোনদের কাছ থেকে স্ট্যাম্পে সই নিয়ে নতুন করে প্রতারণা করার চেষ্টা করছে। এমনকি সই দেয়া স্ট্যাম্প নিয়ে সাংবাদ অফিস ও অন্যান্য জায়গায় গিয়ে বিভিন্ন কায়দা খুজে সাংবাদিক জামাল তালুকদারকে হয়রানি করার চেষ্টা করছে। 


সাংবাদিক জামাল তালুকদারের বড় ভাই ইসমাইল তালুকদারকে ২ লক্ষ টাকা ধার দিয়েছিলেন ব্যাবসার কাজে কিন্তু ইসমাইল তালুকদার খানপুরের আরও অনেকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে।


আবার তার ছোট ভাই কামাল তালুকদারকে তিনি ৪ লক্ষ টাকা দিয়ে বিদেশ পাঠিয়েছিলেন। কামাল তালুকদারও তার থেকে ধার নেয়া ৪ লক্ষ টাকা এখনও ফেরত দেয়নি। সাংবাদিক জামাল তালুকদারের কাছে ধার দেয়া টাকার সব স্ট্যাম্প আছে। 
সাংবাদিক জামাল তালুকদারের দুই ভাই তার কাছ  থেকে ধার নেয়া টাকা এখনও পর্যন্ত ফেরত দেয়নি। তারাও প্রতারণা করেছে। তাই তাদের সাথে নিয়ে মাসুমও এখন বিভিন্নভাবে প্রতারণা করে সাংবাদিক জামাল তালুকদারের ঘর দখলের পায়তারা করে যাচ্ছে।


এর আগে বাসের হেলপার  মাসুম  তার বোন সেলিনা তালুকদারকে দিয়ে সাংবাদিক জামাল তালুকদারের বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা জিডি করে। যা সম্পুর্ণই বানোয়াট।  
এছাড়াও সাংবাদিক মাসুমের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ পাওয়া গেছে। মাসুম রাতের আধারে মাদক স্পটে কি করেন। খানপুর রেল লাইন, চাষাড়া রেল লাইন, লারকিপট্টি ও ৫নং ঘাট রেললাইনেও তাকে দেখা যায়। মাসুম অনেকের কাছ থেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বিভিন্নভাবে কৌশলে ধান্দা করেন। এখন তার নিজের ভাই সাংবাদিক জামাল তালুকদারকেও তিনি মিথ্যা ও বানোয়াট জিডি করে ঘর দখলের চেষ্টা করছেন। 


সাংবাদিক জামাল তালুকদার তদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে তাদেরকে আইনের আওতায় আনার জোর দাবী জানিয়েছেন।