মনিরামপুর রফিক হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন করলো যশোর ডিবি পুলিশ, গ্রেফতার-৫, হত্যাকাজে ব্যবহৃত অস্ত্রগুলি উদ্ধার।

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

গত ০৯/০৭/২০২০ তারিখ বেলা ১৩.২০ ঘটিকার সময় মনিরামপুর থানাধীন কুচলিয়া স্কুলের সামনে পাকা রাস্তার উপর রফিকুল ইসলাম (৫৫) কে অজ্ঞাতনামা ৫/৭ জন সন্ত্রাসী গুলি করে ও জবাই করে হত্যা করে। এই সংক্রান্তে মনিরামপুর থানার মামলা নং ০৬(৭)২০২০ রুজু হয়।


মামলাটি স্পর্শকাতর হওয়ায় জেলার পুলিশ সুপার জনাব মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, পিপিএম স্যারের তত্ত্বাবধানে জেলা গোয়েন্দা শাখার এলআইসি শাখা তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে আসামীদের সনাক্ত করে। ১৭ ও ১৮ জুলাই, ২০২০ তারিখ অভয়নগর, যশোর কোতয়ালী ও মনিরামপুর থানা এলাকায় জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ মারুফ আহম্মদ এর নেতৃত্বে মনিরামপুর থানা ও অভয়নগর থানা পুলিশের সহযোগিতায় ০৫ জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের স্বীকারোক্তি মতে হত্যাকাজে ব্যবহৃত অস্ত্রগুলি উদ্ধার করা হয়।


আসামীরা নব্য চরমপন্থি সংগঠন “পূর্ব বাংলার কমিউনিষ্ট পার্টি” হিসেবে পরিচয় দেয়।


আরো ব্যাপক তদন্ত অব্যাহত আছে।গ্রেফতারকৃত আসামীদের নাম ঠিকানা : ১. মোঃ হেলাল ভুইয়া (২০), পিতা-আয়নাল হক ভুইয়া, সাং-৪নং ওয়ার্ড, নওয়াপাড়া, থানা-অভয়নগর, জেলা-যশোর।২. মোঃ সেলিম (২৬), পিতা-আতিয়ার রহমান, সাং-উত্তর বাহাদুরপুর,  থানা-মনিরামপুর, জেলা-যশোর।৩. মোঃ হাসান আলী (২২), পিতা-জলিল গাজী, সাং উত্তর বাহাদুরপুর, থানা- মনিরামপুর, জেলা-যশোর।৪. সমিরন পাড়ে (৫৪), পিতা- মৃত মহাদেব পাড়ে, সাং- ডাঙ্গা মশিহাটি, থানা- অভয়নগর, জেলা-যশোর।৫. তাপস মেডেল (৩৮), পিতা-মৃত গোবিন্দ মন্ডল, সাং- নেবুগাতি, থানা- মনিরামপুর, জেলা- যশোর।


উদ্ধারকৃত আলামত :(ক) ০১ টি দু’নালা বন্দুক(খ) ০২ রাউন্ড কার্তুজ(গ) ১ টি বাজারের ব্যাগ(ঘ) আসামীদের ব্যবহৃত মোবাইল