জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মহানগর আ.লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মহানগর আ.লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল (ছবি সকাল নারায়ানগঞ্জ)
জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মহানগর আ.লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল (ছবি সকাল নারায়ানগঞ্জ)

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

সসর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙালি,  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে কেক কাটা, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মহানগর আ.লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল (ছবি সকাল নারায়ানগঞ্জ)
জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মহানগর আ.লীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল (ছবি সকাল নারায়ানগঞ্জ)

বৃহস্পতিবার(১৯ মার্চ) বিকেলে ২ নং রেলগেইটস্থ মহানগর আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে  কেক কাটা, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন’র সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা, সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক এস এম আহসান হাবীব, জিএম আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মাহমুদা মালা, জিএম আরাফাত, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. আতিকুজ্জামান সোহেল প্রমুখ। 

অনুষ্ঠনে সভাপতির বক্তব্যে আনোয়ার হোসেন বলেন, জাতির জনকের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে দেশে এবং দেশের বাইরে অনেক কর্মসূচি ছিলো কিন্তু মরণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে সব কর্মসূচিতে শিথিলতা আনতে হয়েছে। আমাদেরকেও কেন্দ্র থেকে দায় সাড়া কর্মসূচির নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।  আজকে আমরা করোনাকে ভয় না করে আল্লাহকে ভয় করি, পরিচ্ছন্ন থাকি এবং সতর্ক থাকি। কারণ পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ।

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করি, বেশি বেশি করে দোয়া করি নিজেদের জন্যে, সমাজের জন্য, দেশের জন্য এবং সারাবিশ্বের মানুষের জন্য। যাতে করে আল্লাহ এই মহামারী থেকে আমাদের মুক্তি দেন।  আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হন। আমাদের বাংলাদেশে করোনা আঘাত হানার একমাত্র কারণ হচ্ছে প্রবাস ফেরতদের অবাধ মেলামেশা। আমি অনুরোধ রাখবো কমপক্ষে ১৪ দিন প্রবাস ফেরতদের কাছ থেকে দূরে থাকুন।  বয়স্ক ও শিশুদের প্রতি বিশেষ নজর রাখুন। 

অনুষ্ঠানে জাতির জনকের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যদি জাতির জনকের জন্ম না হতো আমরা বাংলাদেশ পেতাম না। আজকে বাংলাদেশ না হলে কোনো পদ-পদবীও আমরা পেতাম না। ডিসি,এসপি, এমপি কিছুই হতে পারতাম না। তাই জাতির জনকের প্রতি কৃতজ্ঞ আমরা।

বক্তব্য শেষে জাতির জনকের রুহের মাগফেরাত কামনা করে এবং করোনা ভাইরাসের মহামারী থেকে মুক্তি পেতে বিশেষ দোয়া করা হয়। দোয়া শেষে জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা হয়।