চোখের পানি ও ফুলের মালা নিয়ে “মানবতার মা”দিনাকে বরন

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

ছাত্রলীগের দায়ের করা মামলায় প্রানঘাতী করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় “মানবতার মা” খ্যাত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ৭,৮,৯ নং ওর্য়াডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর আয়শা আক্তার দিনা ও তার স্বামী সায়েম প্রধানসহ অন্যান্য আসামীদের জামিন হয়েছে।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) নারায়ণগঞ্জ আদালতের সিনিয়র জুডিসিয়াল মাজিস্ট্রেট নুরুন নাহার ইয়াসমিনের আদালতে আত্নসমর্পণ করে জামিন চাইলে আদালত তাদের সকলকে জামিন মঞ্জুর করেন। এদিকে জামিনের খবর পেয়ে এলাকাবাসী বুধবার (৮ জুলাই) খুশি হয়ে কাউন্সিলর আয়েশা আক্তার দিনাকে ফুল দিয়ে বরন করে নেন। অনেকেই আবার তাকে ফিরে পেয়ে আনন্দে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেন নি।

এক দিকে চোখের পানি আরেক দিকে হাতে ফুলের মালা নিয়ে তাকে বরন করতে দেখা গেছে। কাউন্সিলর দিনা তার এলাকাবাসী শুভাকাঙ্ক্ষী দের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।সবচেয়ে বেশি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নারায়ণগঞ্জ এর সাংবাদিকদের প্রতি। আপনিতো মামলা থেকে জামিন পেয়ে এসেছেন আপনিওতো থানায় অভিযোগ করেছিলেন এখন কি আপনি ওদের বিরুদ্ধে মামলায় যাবেন সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে দিনা স্পষ্ট জানান, না আমি মামলায় যাবোনা।

কারন এখন হামলা, মামলা, রাজনীতি করার সময় না।এখন মহামারী তে আমি যদি মামলা করি এই মামলায় যদি কেও এরেস্ট হয়ে জেলে যায় তখন যদি তারা করোনায় আক্রান্ত হয় তাহলে কি সেইটা ভালো হবে বলেন। রাজনীতি করার অনেক সময় পাওয়া যাবে বেচে থাকলে।এখন শুধুই মানব সেবার সময়।

আমি আমার নিয়মিত মানব সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাবো। বরং যারা আমার উপর হামলা মামলা করেছে আল্লাহপাক যেনো তাদের কেও করোনা মুক্ত রাখেন আমি আল্লাহপাকের দরবারে এই দোয়া করি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী বলেন,দিনা আপা আমাদের চোখে মানবতার মা।তিনি করোনার শুরু থেকে আমাদের পাশে সব সময় ছিলেন।

আমাদের যখন যা লাগতো দিনা আপার কাছে গিয়ে বললে উনি সহায়তা করতো।অথচ কিছু কুচক্রী মহল আপাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল খাটাতে চেয়েছিলো।কিন্তু আল্লাহ কখনো অন্যায় সহ্য করতে পারে না।তাই আপাকে আটকাতে পারে নি।উনি আবার আমাদের মাঝে ফিরে এসেছেন। এদিকে সাইফুল ইসলাম নামে এক রিকশাচালক বলেন,আমরা খুব আনন্দিত।দিনা আপা অন্যায়কে জয় করে আমাদের মাঝে আবার এসেছেন।উনাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে খুব খারাপ কাজ করেছে।

দিনা আপার মতো মানুষ হয় না।আমাদের আর এখন টেনশন নেই আমরা আমাদের মানবতার মা কে ফিরে পেয়েছি।আপনারা আপার জন্য দোয়া করবেন যেনো উনি সব সময় সুখে দুখে আমাদের পাশে থাকে। প্রসঙ্গত,করোনার দুঃসময়ে সাধারন মানুষের পাশে থাকায় “মানবতার মা“ হিসেবে উপাধি পেলো নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নারী কাউন্সিলর আয়েশা আক্তার দিনা।

প্রানঘাতি করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই দিন নাই রাত নাই সাধারন মানুষের ঘরে গিয়ে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন। করোনা প্রতিরোধে করেছেন সচেতন মূলক লিফলেট বিতরন এবং জীবানু নাশক ঔষধ ছিটিয়েছেন। অসহায় গর্ভবতী নারীদের ডেলিভারি খরচ সহ সমস্ত দায়ীত্ব নিয়ে মানবতার মা উপাধি পেয়েছেন ওই নারী কাউন্সিলর।