গঞ্জে আলী খাল পুনঃখননে মূল স্থাপনা উচ্ছেদে স্বস্তি

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

গঞ্জে আলী খাল উদ্ধার ও পুনঃখননের মূল দখলকৃত চাঁনমারী বিভিন্ন স্থাপনা সরিয়ে নিচ্ছে দখলদাররা। এর কারণে খালের মূল স্থানে পুনঃখননে আর কোন সমস্যা রইলো না। এ সংবাদে নাসিক ১২নং ওয়ার্ডের জনগণের মধ্যে স্বস্তি বাতাস বইছে। দখলদারদের সরিয়ে নেয়াকে সাধুবাদ জানিয়ে এমপি সেলিম ওসমান ও নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন জানিয়েছে কাউন্সিলর শওকত হাসেম।

জানা গেছে, নাসিকের ১২নং ওয়ার্ডের উত্তর চাষাড়া, চাঁনমারী, খানপুর, তল্লা সহ বিভিন্ন এলাকায় টানা বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এতে হাজারো পরিবার চরম ভোগান্তিতে শিকার হয়। এর থেকে পরিত্রাণ পেয়ে কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকুর নেতৃত্বে একটি টিম অনুসন্ধানে চাঁনমারী ও তল্লা এলাকায় গঞ্জে আলী খালের উপরে দখলদারদের স্থাপনা ও ঝুট-প্ল্যাষ্টিকের কারণে পানি চলাচলে ব্যাহত হচ্ছে। এতে খালটি উদ্ধার ও পুনঃখননের জন্য স্থানীয় এমপি ও নাসিক মেয়রর প্রতি সহযোগিতা চান কাউন্সিলর শকু। তাদের আশ্বাসে ২৮ জুন থেকে গঞ্জে আলী খাল পুনঃখনন করার ঘোষনা দেয়া হয়। ২৫ জুন থেকে রেললাইন পার্শ্ব ঘিরে খানপুর তল্লা, উত্তর চাষাড়া অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়া হলেও চাঁনমারীতে মার্কেট, হোটেল ও ঝুটের দোকানগুলো সরিয়ে নেয়া হয়নি। এতে জনগণের মধ্যে কিছু সন্ধিহান হলেও শুক্রবার থেকে স্বেচ্ছায় দখলদাররা তাদের মালামাল সরিয়ে নেয়া শুরু করে।

এমন সংবাদে ঘটনাস্থলে কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু নেতৃত্বে চাঁনমারী এলাকায় দ্রুত মালামাল ও স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার জন্য মাইকিং করা হয়।

তিনি জানান, স্থানীয় এমপি সেলিম ওসমান ও নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী সহযোগিতা কারণে গঞ্জে আলী মূল জায়গা চাঁনমারী পয়েন্টের দখলকৃতদের সরিয়ে দেয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে শুক্রবার সকাল থেকে নাসিকের উদ্যোগে মাইকিং করা হয়েছে। অনেকে দোকানদার নিজেরাই তারা মালামাল সরিয়ে নিচ্ছে, অনেকে শনিবার সরিয়ে নেয়ার জন্য সময় নিয়েছে।

শকু আরো জানান, এই পয়েন্ট উন্মুক্ত হওয়ার কারণে এলাকা মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। গঞ্জে আলী খাল উদ্ধার ও পুনঃখননের পর চাঁনমারী থেকে তল্লা পর্যন্ত আধুনিক কয়েকটি প্রকল্প নেয়া হয়েছে। এই চাঁনমারীতে নাগরিকদের জন্য খোলা মেলা পার্ক করে দেয়া হবে। যেন বিকালে উন্মুক্ত বাতাস পরিবার সদস্যদের নিয়ে ঘুরতে পারবে। নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী এই স্থানে আধুনিক পার্ক করার জন্য পরিকল্পনা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি এমপি সেলিম ওসমান পুরো ১২নং ওয়ার্ড জলাবদ্ধতা দূরকরণে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছে।