কেক কেটে বিএনপির ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করলেন এড. সাখাওয়াত হোসেন

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক)

কেক কেটে এবং আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দল বিএনপি’র ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন করেছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। আজ মঙ্গলবার ক১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ ক্লাব মার্কেটের সামনের রাস্তায় নেতাকর্মীদের নিয়ে কেক কাটেন সাখাওয়াত হোসেন খান। 


এক বক্তব্যে এড. সাখাওয়াত বলেন, বাংলাদেশে বহু দলীয় গণতন্ত্রের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের হাতে গড়া দল বিএনপির আজ ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। আজকে মহা ধুমধামের সাথে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের কথা থাকলেও করোনা ভাইরাস ও বন্যার কারনে কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী আমাদের কর্মসূচি সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে।।তিনি বলেন আরও বলেন, দেশে আজ সাধারণ মানুষের জান মালের কোন নিরাপত্তা নেই। দেশের মানুষের ভাতের অধিকার ভোটের অধিকার হরণ করে দেশে এক ব্যক্তির শাসন কায়েম করা হয়েছে। দেশের গণতন্ত্রকে গলা টিপে হত্যা করে ক্ষমতা ধরে রাখা সরকারের হাত রক্তে রঞ্জিত। দেশের মানুষকে এই দু:শাসন থেকে মুক্তি দিতে, ভাত ও ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে আজকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে আমাদের শপথ নিতে হবে, দেশে গণতন্ত্র পুন:প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। সে লক্ষ্যে প্রতিটি জিয়ার সৈনিককে ঐক্যবদ্ধ থেকে রাজপথের আন্দোলন সংগ্রামে অংশগ্রহনের প্রস্তুতি নিতে হবে। আজকের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনের জন্যে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি ও সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের আমার শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।


এরপর নারায়ণগঞ্জ ক্লাব মার্কেটের তৃতীয় তলায় মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। এ সময় করোনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় এবং আক্রান্তদের সুস্থ্যতা ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানসহ সকল প্রয়াত নেতাদের স্মরণে দোয়া করা হয়। এছাড়াও বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সুস্বাস্থ্য এবং দীর্ঘায়ু কামনা করা হয়।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি মনির হোসেন খান, এড. সরকার হুমায়ুন কবীর, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক এড. এইচএম আনোয়ার প্রধান, জেলা যুবদলের সহ সভাপতি পারভেজ মল্লিক, বন্দর উপজেলা যুবদলের সভাপতি মনিরুল ইসলাম মনু, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম রিপন, মহানগর বিএনপি নেতা মহিউদ্দিন শিশির, মহানগর যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক সাগর প্রধান, মঞ্জুরুল আলম মুসা, তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক সজিব খন্দকার, কার্যকরী সদস্য সম্রাট হাসান সুজন, মহানগর তাঁতী দলের সদস্য সচিব ইকবাল হোসেন, মহানগর মৎস্যজীবী দলের যুগ্ম আহবায়ক লিংকন খান, ফতুল্লা থানা মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক রাসেল প্রধান, কুতুবপুর ইউনিয়র মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক ওমর ফারুক নাইম খান, মহানগর শ্রমিক দলের যুগ্ম আহবায়ক লুৎফর রহমান মন্টু, মহানগর তাঁতী দলের যুগ্ম আহবায়ক অপু রহমান, জাহিদ খন্দকার, এড. সোহাগ, শ্রমিক দল নেতা আ: মতিন ভূইয়া, আলাউদ্দিন বেপারী, ইমামুদ্দিন তোফা, হুমায়ুন কবীর ভূইয়া, আবে জমজম, আল আমিন, হৃদয় ভূইয়া, মো: সুলতান, মো: ফয়সালসহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।