ওসমান পরিবার আমাদের রক্ষা কবজ -খোকন সাহা।

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

এ্যাড,খোকন সাহা গনমাধ্যমের উদ্দ্যেশে বলেছেন লক্ষি নারায়ন আক্ষরার নামে জিওস পুকুর ১৪/১৫নম্বর দলিল বানিয়ে প্রায় দুই শত কোটি টাকার সম্পদ আত্বশাদ করলো কারা,নারায়নগন্জের একটি প্রভাবশালী মহল তা দখল করে রেখেছে আপনারা অনুসন্ধান করে দেখেন এরা কারা।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় সরকারী গনগ্রন্থাগারে বাংলাদেশ যুব ঐক্য পরিষদ আয়োজিত নারায়নগন্জ জেলা ও মহানগর যুব ঐক্য পরিষদ এর ত্রী-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি  এসব কথা বলেন।

সম্মেলনে উপস্হিত সকলের উদ্দেশ্য  তিনি আরও বলেন    শুধু এটাই  নয় শ্বশানের পুকুরও ১৪ নম্বর দলিল বানিয়ে দখল করে রেখেছে, আগামী নির্বাচনে ভোট দেওয়ার সময় বুঝে শুনে ভোট দিবেন। কারন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার যতদিন ক্ষমতায় আছে ততদিন আপনাদের  দাবী পুরন হবে। এই সরকার কে বিব্রত করার জন্য কিছু লোক ধর্মীয় স্হাপনায় হামলা করেছে। লাঙ্গল বন্দের উন্নয়নে ১২শত কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে।

তিনি ওসমান পরিবার সম্পর্কে বলেন উনারাই আমাদের রক্ষা কবজ, কারন হিন্দু -মুসলিম দাঙ্গা সময় প্রয়াত সাংসদ নাসিম ওসমান ও শামীম ওসমান রাত জেগে এই নগরীর সকল মানুষ কে পাহারা দিয়েছে, আমাদের পাশে দারিয়েছে, এবং লাঙলবন্দের দুর্ঘটনায় নিহতদের লাশ যখন কেউ ধরছেনা সেদিন সাংসদ সেলিম ওসমান ২৫ হাজার টাকা দিয়ে তাদের বাড়িতে পাঠানোর ব্যাবস্হা করেছেন, আর সেই লাশ ধরার জন্য কাউকে পাওয়া যায়নি আমরাই সে কাজগুলো  করেছে আবার কেউ টিভিতে লাইভে সাক্ষাৎ দিচ্ছে এদের চিনে রাখবেন।

এসময় নারায়নগন্জ জেলা যুব ঐক্য পরিষদ এর আহবায়ক আনন্দ কুমার সেরাওগী সুমনের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব ভজন চন্দ্র দাসের  সন্চালনায় উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ যুব ঐক্য পরিষদের সভাপতি পংকজ কুমার সাহা,কার্যকরী সভাপতি রাহুল বড়ুয়া, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা পূজা উৎযাপন পরিষদের সভাপতি দিপক কুমার সাহা,  সাধারণ সম্পাদক শিপন সরকার শিখন, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদ এর জেলার সাধারন সম্পাদক প্রদিপ কুমার দাশ, মহানগরের সভাপতি লিটন চন্দ্র পাল, নিমাই চন্দ্র, সঞ্জয় কুমার দাস, এ্যাড, অন্জন দাস,রন্জিত মন্ডল,উওম কুমার সাহা, রাজিব দাশ,প্রমুখ। পরে সম্মেলনে জেলার সভাপতি আনন্দ কুমার  সেরাওগী সুমন, সাধারণ সম্পাদক ভোজন চন্দ্র দাস, মহানগরের সভাপতি এ্যাড,অন্জন দাস,সাধারণ সম্পাদক রিপন কর্মকর কে নির্বাচিত করে ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ।