অনলাইনে সরকারি চাকরি প্রদানের নামে প্রতারণার অভিযোগে ৪জন গ্রেফতার

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক)

অনলাইনে লোভনীয় বিজ্ঞাপন দিয়ে সরকারী বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরে চাকরি প্রদানের নামে প্রতারণার অভিযোগে প্রতারক চক্রের ৪ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১ ।


গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন মোঃ আনিসুর রহমান (৩২), মোঃ জহিরুল ইসলাম (২৩), মোঃ শামসুল হুদা (৫৩) , মোঃ হান্নান ওরফে ইমন (৩২)। 


মঙ্গলবার ( ১০ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৬ টার দিকে ঢাকার গুলশান থানার গুলশান ২নং গোল চত্বরের মেট্রোপলিটন শপিং প্লাজার ৯নং ন্যাশনাল কম্পিউটারের দোকানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

 
এ সময় গ্রেফতারকৃত আসামীদের নিকট হতে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ১ পাতা চাকুরীর ভুয়া নিয়োগপত্র, ১টি সীল, ১টি মনিটর, ১টি সিপিইউ, ১টি প্রিন্টার, ১টি মাউস, ১টি কী-বোর্ড উদ্ধার করা হয়। ১টি পেনড্রাইভ যার মধ্যে রক্ষিত সোরাষ্ট্র মন নামক ফোল্ডারে বিভিন্ন সরকারী প্রতিষ্ঠানের ১০টি ভুয়া নিয়োগপত্র প্রিন্টপূর্বক জব্দ করা হয়।


র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ( সিপিএসসি, আদমজীনগর,নারায়ণগঞ্জ) সুমিনুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে।


তিনি জানান, প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় এই সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র দীর্ঘদিন ধরে পত্রিকা, লিফলেট ও অনলাইনে বিভিন্ন সরকারী অফিস, মন্ত্রণালয় ও সরকারী বিভিন্ন অধিদপ্তরে চাকুরীর ভুয়া নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিয়ে জালিয়াতির মাধ্যমে সরকারী কর্মকর্তার নাম ও পদবীর সীল জাল করে চাকুরী প্রত্যাশীদের সাথে প্রতারণা করে আসছে। 

গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এই প্রতারক চক্রের মূলহোতা মোঃ আনিসুর রহমান। সে গ্রেফতারকৃত অন্যান্য আসামীদের সহযোগিতায় গুলশান ২নং গোল চত্বরের মেট্রোপলিটন শপিং প্লাজার ৯নং ন্যাশনাল কম্পিউটারের দোকানে ডিজিটাল ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করে চাকুরী প্রত্যাশী সহজ সরল মানুষদের বিশ্বাস ভঙ্গ করে চাকরীর প্রলোভন দেখিয়ে আকৃষ্ট করে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করে আসছিল।

চাকুরী প্রত্যাশী সাধারণ মানুষদের ডেকে নিয়ে এসে বিভিন্ন ভূয়া নিয়োগপত্র প্রদর্শন করে ফাঁদে ফেলে তাদের নিকট হতে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে আত্মসাৎ করে। চাকুরী না পেয়ে প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে অনেকে প্রদেয় টাকা ফেরত চাইলে তাদেরকে ভয়-ভীতি, হুমকি প্রদর্শন করে প্রতারক চক্রটি। বেশ কয়েকজন ভুক্তভোগীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১১ কর্তৃৃক অনুসন্ধান চালিয়ে ঘটনার সত্যতা পায়।

 
গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য পরষ্পর যোগসাজশে দীর্ঘদিন ধরে সরকারী বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরে ভুয়া নিয়োগের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা ও জাল জালিয়াতির মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করে আসছে । 


গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।