মহানগর জাতীয় পার্টির সিনিয়র সহ সভাপতি ও বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী আলহাজ্ব মেজবাহ উদ্দিন আহম্মেদ (ভুলু)র জানাজা ও দাফন সম্পন্ন।

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টায় নগরীর  বাপ্পি সড়কে মরহুমের নামাজের জানাজা শেষে পাইকপাড়া কবরস্হানে তাকে দাফন করা হয়। জানাজার পূর্বে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে মহানগর জাতীয় পার্টির আহবায়ক মোঃ সানাউল্লাহ সানু মরহুমের স্মৃতিচারণ করতে যেয়ে বলেন, ভুলুভাই খুবভদ্র অমায়িক এবং পরিছন্ন একজন রাজনিতিবিদ ছিলেন, তিনি আওয়ামীলীগের  রাজনিতির সাথে জরিত ছিলেন পরে তিনি জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন, তখন থেকেই সব-সময় তিনি ন্যায়ের পক্ষে কাজ করছেন মৃত্যুর আগ পর্যন্ত, অন্যায় কে পশ্রয় দেননি সাদা মনের মানুষ ছিলেন এবং প্রয়াত সাংসদ নাসিম ওসমান উনাকে সম্মান দিয়ে কথা বলতে দেখেছি। দীর্ঘদিন তিনি দলের হয়ে কাজ করছেন মানুষের কল্ল্যানে এবং দলের দুঃস্বময়ে অনেক বড় ভূমিকা পালন করেছেন,শুধু তাই নয়, তৃণমূল থেকে আসা নেতা কর্মীদের মূল্ল্যায়ন করতেন।

তার অবদানের কথা আমরা জাতীয় পার্টি নেতাকর্মীরা কখনও ভুলবোনা। আমি  আমার প্রয়াত নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা সাবেক সাংসদ নাসিম ওসমান,সহকর্মী ভুলু ভাই,আবুল খায়ের ভূঁইয়া,সহ যারা মৃত্যু বরন করেছেন তাদের সকলের রুহের মাগফেরাত কামনা করছি আল্লাহ পাক যেনো উনাদের জান্নাতুল ফেরদৌস দান করেন এবং সেই সাথে তিনি শোক শোন তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন জেলা মানবাধিকার কাউন্সিলের মহানগরের সভাপতি ও সিদ্দিরগন্জ থানা জাতীয় পার্টির সভাপতি কাজী মোঃ মোহসীন, ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলার মোঃ কবীর হোসাইন, পরিবারের পক্ষে মরহুমের বড়ভাই বেলায়েত হোসেন লাভলু।

এছাড়াও জানাজায় আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক কাউন্সিলর কামরুল হাসান মুন্না, মরহুমের বড় ছেলে অনিক, জেলা জাতীয় সেচ্ছা সেবক পার্টির আহবায়ক কুতুব উদ্দিন আহম্মেদ জেলা যুবলীগের সভাপতি মোঃ আব্দুল কাদির, যুবলীগ নেতা মোঃ রিপন,নারায়গন্জ শহর জাতীয় যুব সংহতির সাধারণ সম্পাদক রীপন ভাওয়াল,সহ সভাপতি আজমত উল্লাহ খন্দকার, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মনির হোসেন,সহ নলুয়া এলাকার গন্যমান্ন্য ব্যাক্তিবর্গ, ব্যাবসায়ী নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন মসজিদের খতিব ও কমিটির সদস্যগন।