ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত পুলিশের কন্সস্টেবল আব্দুল কুদ্দুস নয়ন (৩৫) কে হাজির করা হলে তার পক্ষে জামিনের আবেদন করা হয়

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক)

সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মহসিনের আদালতে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত পুলিশের কন্সস্টেবল আব্দুল কুদ্দুস নয়ন (৩৫) কে হাজির করা হলে তার পক্ষে জামিনের আবেদন করা হয় ৷


জামিনের আবেদন শুনানী শেষে বিজ্ঞ বিচারক পুলিশের এই সদস্যকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।


এর পূর্বে  বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) সকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইনসের কর্মস্থল থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয় ৷ তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে জানান সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুক ৷


গ্রেফতার পুলিশ কনস্টেবলের নাম আব্দুল কুদ্দুস নয়ন (৩৫)৷ সে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে কর্মরত৷ সে ভোলার চরফ্যাশনের উত্তর চরমঙ্গলের সিরাজ মিয়ার ছেলে৷ 


বুধবার (৭ অক্টোবর) রাতে এই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা করেন সিদ্ধিরগঞ্জের এক পার্লার কর্মী তরুণী (২৫)৷


মামলায় তরুণী উল্লেখ করেন, পূর্বের স্বামীর সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়ার পর গত দুই বছর পূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় হয় কনস্টেবল আব্দুল কুদ্দুস নয়নের সাথে৷ পরে বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষণের শিকার হন বলে অভিযোগ ওই তরুণীর৷ সর্বশেষ ৬ অক্টোবর সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার মিজমিজিতে তার নিজ বাসায় আব্দুল কুদ্দুস তাকে ধর্ষণ করেন বলে উল্লেখ করেন ওই তরুণী৷ ওই তরুণী দুই সন্তানের জননী ৷


নারায়ণগঞ্জ আদালতের একাধিক সুত্র থেকে জানা যায়,  বিয়ে করার আশ্বাস দিয়ে মামলার বাদীকে নানাভাবে চেষ্টা চালিয়ে ব্যার্থ হয় আসামী পুলিশ কন্সস্টেবল আব্দুল কুদ্দুস নয়নের স্ত্রীসহ  অন্যান্য স্বজনরা ৷