আবিবি তিতাস গ্যাস টি এন্ড ডি কোং লিঃএর দ্বি- বার্ষিকী প্রতিনিধি সম্মেলন অনুষ্ঠিত

সকাল নারায়ণগঞ্জঃ

স্টাফ রিপোর্টার (আশিক)

জাতীয় শ্রমিকলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এ কে এম আব্দুল মোতালেব প্রধান অতিথির বক্তব্যে   বলেন, আমি দীর্ঘদিন এ প্রতিষ্ঠানে ৩৬ বছর কাজ করেছি, সিবিএর ১৩ জনের এ পরিষদ ছিলো সর্বশ্রেষ্ঠ পরিষদ তাদের কার্যক্রম বলিষ্ট নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে।

যেহেতু আমরা আওয়মীলীগ করি বিধায় এ সংগঠনের পাশে থাকবো। তিনি ভাস্কর্য প্রসংঙ্গে বলেন বাংলাদেশে কিছু মুন্সি মোল্লারা তারেক জিয়ার টাকা পেয়ে এতো লাফালাফি করছে,এ লাফালাফি বেশিদিন থাকবে না।  আর নিক্সন বলেছে যুবলীগকে ঠেকান এগুলো কিসের আলামত। সাড়া বিশ্বে যখন মুসলমানদের উপর নিপিরন নির্যাতন চালছে তখনতো কেউ এর প্রতিবাদ করেন না।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে ইজরাইয়েলর বিরুদ্ধে নিন্দা জানিয়েছেন। আবার পদ্দাসেতুর উন্নয়ন দেখে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া বলেন পদ্দা সেতুতে কেউ উঠবেন না বাশদিয়ে বানাচ্ছে বলে মন্তব্য করে বক্তব্য দেন।

আজকে দেখেন এই সেতুর কাজ প্রায় শেষের দিকে, এটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে কারনে আজ  বাস্তবায়ন হতে চলেছে পদ্দাসেতু। নারায়নগঞ্জ আবিবি তিতাস গ্যাস টি এন্ড ডি কোং লিঃএর দ্বি- বার্ষিকী প্রতিনিধি  সম্মেলনে এ কথা বলেন। 


এ সময় তিতাস গ্যাস কর্মচারী ইউনিয়ন (সিবিএ) রেজিঃনং- বি ১১৯৩ এর সভাপতি মোঃ কাজিম উদ্দীন সভাপতির বক্তব্যে বলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ৩০ লক্ষ শহিদের রক্তের বিনিময়ে এ দেশ স্বাধীন করেছিলো।

১০ ই জানুয়ারী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুশেখ মজিবুর রহমান  দেশে প্রত্যাবর্তন করেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর প্রচেষ্টায় ও আন্তর্জাতিক চাপে তাকে পাকিস্তানের  সরকার তাকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছিলো,  বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালে ১২ই অক্টোবর জাতীয় শ্রমিকলীগ প্রতিষ্ঠা করেন মেহনতি শ্রমিক শ্রেনিকে সম্মান প্রদর্শন করার জন্য, শুধু তাই নয় তিনি শিল্পমালিকদের বলেছেন শ্রমিকদের সম্মান দিয়ে কথা বলবেন কারন দেশের অর্থনৈতিক চাকাকে চালু রেখে উন্নত দেশ গড়ার জন্য কাজ করবে এই শ্রমিকরা। যে ব্যাক্তি এ দেশ কে স্বাধীনতা এনে দিলেন  অথচ সেই ব্যাক্তি  ভাস্কর্য নির্মানে প্রতিবাদ করছেন কাদের স্বার্থে।

স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের সময় আপনারা তখন কোথায় ছিলেন। কাদের ইশারায় আপনারা এর বিরুদ্ধিতা করছেন। আপনারা বঙ্গবন্ধুর  ভাস্কর্য নির্মানে কোনো বাধা দিয়ে রাখতে পারবেন না বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্হাপন হবেই। আর বতর্মান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ কে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি তিতাস গ্যাস কে সেবা প্রদানে  সাধারন মানুষের কাছে  আবাসীক গ্রাহকদের  চাহিদা মিটানোর জন্য আমাদের নিয়ে কাজ করছেন। এই সংগঠন ও আবাসিক গ্যাস নিয়ে সরযন্ত্র চলছে আপনারা চোখ কান খোলা রাখবেন আবাসিক এলাকায় গ্যাস সরবরাহ এর পক্ষে যাতে করে দেশের নাগরিক সরকারের সুবিধা গ্রহন করতে পারে। 


আলোচনা সভা শেষে প্রতিনিধি সম্মেলনে মোঃ রফিকুল ইসলাম,কে  সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক মোঃ হানিফ মিয়ার নাম সহ ১৫ সদস্য বিশিষ্ট জেলা কমিটি ঘোষণা করেন। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির  সাধারন সম্পাদক মোঃ আয়েজ উদ্দিন আহম্মেদ। 


এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন  একেএম কামাল উদ্দিন, মোঃ জাকির হোসেন, লায়ন ফারুক হোসেন, মারুফ হোসেন শেখ, রতন বসু, মোঃ মজিবুর রহমান, তাজুল ইসলাম, হারুন উর রশিদ, শাহ মোহাম্মদ আকমল, সৈয়দ মাসুদুল করিম মিন্টু,মোঃ সেলিম,জুয়েল প্রধান,সবুজ সিকদার, হুমায়ুন কবির, মন্জুর রহমান,প্রমূখ।